টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ কাউন্সিলর একরাম নিহত

কক্সবাজার সংবাদদাতা : কক্সবাজারের টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী ও উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি একরাম (৪৬) কমিশনার নিহত।

শনিবার দিবাগত রাতে টেকনাফ উপজেলার মেরিনড্রাইভ রোডের নোয়াখালীপাড়ার মিঠাপানিরছড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

র‌্যাব-৭ এর কোম্পানি কমান্ডার (সিপিসি-২) মেজর রুহুল আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘রাত সাড়ে ১২ টার দিকে টেকনাফের নোয়াখালীপাড়া এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে র‌্যাবের গুলিবিনিময় হয়। পরে সেখান থেকে তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ও টেকনাফের ওয়ার্ড কাউন্সিলর একরামুল হকের মরদেহ উদ্ধার হয়। তিনি আরো জানান, কক্সবাজারের টেকনাফ থানাধীন মেরিনড্রাইভ রোডের নোয়াখালীপাড়ার মিঠাপানিরছড়া এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দলের গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদকব্যবসায়ী ও ইয়াবার শীর্ষ গডফাদার, টেকনাফ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. একরামুল হক এর গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মরদেহের পাশে থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা, ১টি বিদেশি পিস্তল, ১টি ওয়ান শুটারগান, ৬ রাউন্ড গুলি ও ৫টি গুলির খালি খোসা উদ্ধার করে র‌্যাব। নিহত একরামের বিরুদ্ধে মাদকসহ অসংখ্য মামলা রয়েছে। টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়া জানান, র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত একরামুল হকের মৃতদেহ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে র‌্যাব। সকালে (রবিবার) ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো প্রস্তুতি চলছে। সে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রাণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী ছিল।