বাগেরহাট-৩ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হচ্ছেন হাবিবুন নাহার

বাগেরহাট সংবাদদাতা : বাগেরহাট-৩ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হচ্ছেন  আওয়ামী লীগ মানোনীত প্রার্থী হাবিবুন নাহার। আর কোনও দলের প্রার্থী এই উপ নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় এক্ষেত্রে এখন আনুষ্ঠানিক ঘোষণাটাই শুধু বাকি। নির্বাচন কমিশন এখন তার মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই করবেন এবং ৪ জুন তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে জয়ী ঘোষণা করবেন। হাবিবুন নাহার খুলনার নবনির্বাচিত সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের স্ত্রী। এই আসনটি ছেড়ে দিয়ে খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচন করেন তালুকদার  আব্দুল খালেক। এর ফলে বাগেরহাট-৩ আসন বর্ষীয়ান এই আওয়ামী লীগ নেতার পকেটেই থাকলো।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে স্বামী ও সাবেক সংসদ সদস্য তালুকদার আব্দুল খালেককে সঙ্গে নিয়ে বাগেরহাট জেলা নির্বাচন অফিসে উপস্থিত হয়েমনোনয়নপত্র দাখিল করেন হাবিবুন নাহার। মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন রিটার্নিং অফিসার মো. নুরুজ্জামান তালুকদার।

এসময় বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ ডা. মোজাম্মেল হোসেন এমপি, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট. মীর শওকাত আলী বাদশা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ কামরুজ্জামান টুকু, বাগেরহাটের পৌর মেয়র খান হাবিবুর রহমান, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ, আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় উপ-কমিটির সদস্য তালুকদার আব্দুল বাকী, কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী রীনা তালুকদারসহ আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের বিপুল সংখ্যাক নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে রির্টানিং অফিসার মো. নুরুজ্জামান তালুকদার বলেন, ‘মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ছিল আজ। এখন পর্যন্ত শুধুমাত্র আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। উপ-নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৭ মে বাছাই এবং ৩ জুন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ধার্য করা হয়েছে। দাখিলকৃত মনোনয়নপত্র ঠিক থাকলে আগামী ৪ মে হাবিবুন নাহারকে বিনা প্রতিদন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে।

জাতীয় সংসদের মেয়াদ পূরণের বাকি আর মাত্র ৬ থেকে ৭ মাস। তাই দলীয় নির্দেশে খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র হওয়ার অভিপ্রায়ে তালুকদার আব্দুল খালেক এ আসনটি ছেড়ে দিলেও এর উপনির্বাচনে অংশ নেওয়া নিয়ে অন্য বিরোধীদলগুলোর মধ্যে কোনও উত্তেজনা বা প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। তবে গত ২০ মে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চিত্রনায়ক শাকিল খান (শাকিল আহসান) এর পক্ষে তার ভাগ্নে খুলনার দিঘলিয়ার চন্দনিমহল এলাকার শাহরিয়ার নাজিম মনোনয়নপত্র ক্রয় করলে এ উপনির্বাচন খানিকটা আলোচনায় আসে। কিন্তু এর আগেই আওয়ামী লীগ সভাপতির নির্দেশে শাকিল খান মনোনয়নপত্র জমা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানালে আর কোনও প্রতিদ্বন্দ্বী খুঁজে পাননি হাবিবুন নাহার। এর আগে গত সোমবার সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সর্বসম্মতক্রমে বাগেরহাট-৩ (রামপাল-মংলা) আসনের উপ-নির্বাচনে খুলনার নব নির্বাচিত মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের স্ত্রী হাবিবুন নাহারকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করা হয়। তালুকদার আব্দুল খালেক সংসদ সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি চাওয়ায় ১০ এপ্রিল আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৭ মে মনোনয়নপত্র বাছাই এবং ৩ জুন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ধার্য করা হয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বিতা হলে ভোট গ্রহণের কথা ছিল ২৬ জুন। রামপাল-মোংলা নিয়ে গড়া এ আসনের মোট ভোটার দুই লাখ ২৬ হাজার ২৪৯ জন।