আতঙ্কে শীর্ষ ১৪১ মাদক গডফাদার!

ফুলকি ডেস্ক : মাদকের আন্ডারওয়ার্ল্ডে তারা ডন হিসেবে পরিচিত। কেউ কেউ বলেন গডফাদার। তাদের হাতেই দেশের মাদক সাম্রাজ্যের একচ্ছত্র নিয়ন্ত্রণ। অনেকে সরকারি দলের প্রভাবশালী নেতা। ওয়ার্ড, থানা বা মহানগর নেতা থেকে খোদ সংসদ সদস্য পর্যন্ত। আছেন সিআইপি খেতাব পাওয়া ধনাঢ্য ব্যবসায়ী থেকে সরকারি কর্মকর্তারাও। এদের মধ্যে শীর্ষ ১৪১ মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে ঢাকায় থাকেন ৪৪ জন। তবে তাদের এখনও কেউ আটক বা বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন বলে জানা যায়নি। তালিকায় সরকারদলীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদিসহ তার পাঁচ ভাইয়ের নাম রয়েছে। তারা হলেন- মৌলভী মুজিবুর রহমান, আবদুস শুক্কুর, মো. সফিক, আবদুল আমিন ও মো. ফয়সাল। তাদের মধ্যে সরকারের প্রায় সব সংস্থার তালিকায় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি ছাড়া তার ৫ ভাইয়ের নাম রয়েছে। তবে আপন ভাই ছাড়াও তালিকায় বদির পিএস মং মং সেন ও ভাগ্নে সাহেদুর রহমান নিপুসহ আরও বেশ কয়েকজন ঘনিষ্ঠভাজনের নাম রয়েছে। এছাড়াও শীর্ষদের মধ্যে রয়েছেন- ইয়াবা ব্যবসায়ী সাইফুল করিম ওরফে হাজী সাইফুল। তাকে বলা হয় ইয়াবার আন্তর্জাতিক চোরাকারবারি। আরেকজন টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমেদ ওরফে জাফর চেয়ারম্যান। তিনি তার ছেলে মোস্তাককে সঙ্গে নিয়ে তিনি গড়ে তুলেছেন শক্তিশালী ইয়াবা সিন্ডিকেট। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের তালিকায় তাদের অবস্থান যথাক্রমে ২ ও ৩ নম্বরে।

এদিকে সারাদেশে মাদক নির্মূল অভিযানে পুলিশ সদর দফতর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, সারা দেশে চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে গত ৯ দিনে ৪৭ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত বন্দুকযুদ্ধে আট জেলায় অন্তত ৯ জন নিহত হয়েছে।

এছাড়া ১ রমজান থেকে বুধবার পর্যন্ত গ্রেফতার হয়েছে প্রায় ৫ হাজারের বেশি মাদক ব্যবসায়ী। মামলা হয়েছে প্রায় চার হাজার জনের বিরুদ্ধে। র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেয়া হয়েছে ২ হাজার ৭২১ জনের। অন্যদিকে শীর্ষ ১৪১ জন মাদক ব্যবসায়ী কোথায় আছেন। তাদেরকে এখনো গ্রেফতার করা হয়নি। ডয়চে ভেলের তথ্য মতে, তাদের কাউকে এখনো নিহত বা আটক করা হয়নি।