আবারও বিএনপিকে সন্ত্রাসী সংগঠন বললো কানাডার আদালত

ফুলকি ডেস্ক : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপিকে আবারও সন্ত্রাসী সংগঠন বললো কানাডার ফেডারেল আদালত। কানাডায় আশ্রয়প্রার্থী মো. মোস্তফা কামালের পক্ষ থেকে করা রিভিউ আবেদনের রায়ে নিজেদের পূর্বের অবস্থানে থাকার বিষয়টিই নিজেদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে আদালত।  সম্প্রতি মোস্তফা কামালের রিভিউয়ের পরিপ্রেক্ষিতে আবেদন খারিজ করে এ রায় দেওয়া হয়। রায়ে বলা হয়,  তিনি বাংলাদেশে বিএনপি নামে যে রাজনৈতিক দলের সদস্য পরিচয়ে আশ্রয় চাচ্ছেন, সেই রাজনৈতিক দল সন্ত্রাসী কর্মকা-ে যুক্ত।

২০১৫ সালে বাংলাদেশ ছেড়ে কানাডায় আশ্রয়প্রার্থী হন মো. মোস্তফা কামাল। তার বিষয়ে কানাডার সরকার আদালতকে তখন বলেছিল, বাংলাদেশ সরকারকে উৎখাতেও দলটি চেষ্টা করছে বলে যথেষ্ট যৌক্তিক কারণ আছে। কানাডা সরকারের পক্ষ থেকে দেশটির জননিরাপত্তা ও জরুরি তৎপরতা বিষয়কমন্ত্রী দাবি করেন, মোস্তফা কামাল যে রাজনৈতিক দলের সদস্য তারা বাংলাদেশে সন্ত্রাসী কর্মকা-ে যুক্ত ও সরকার উৎখাতের প্রচেষ্টায় লিপ্ত। কানাডিয়ান বর্ডার সিকিউরিটি এজেন্সি (সিবিএসএ)-এর তৈরি একটি প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ দাবি করেন তিনি।

কানাডা সরকারের এই বক্তব্য গ্রহণ করে আদালত মোস্তফা কামালের আবেদন খারিজ করে দিলে তিনি আবার দেশটির ফেডারেল কোর্টে রিভিউয়ের জন্য আবেদন করেন। এরপর গত ৪ মে এ আপিলের রায় ঘোষণা করেন ফেডারেল কোর্ট। তবে তা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয় সোমবার। এবারের রায়ে কারণসহ ব্যাখ্যা দিয়ে জানানো হয়েছে, বিএনপি’কে ‘সন্ত্রাসী দল’ বলে মন্ত্রীর বক্তব্যকেই আবারও মেনে নিয়েছেন ফেডারেল কোর্ট। রিভিউয়ের পর জননিরাপত্তা ও জরুরি তৎপরতা বিষয়ক মন্ত্রীর দাবির সত্যতা যাচাইয়ের জন্য কানাডার অভিবাসন ও শরণার্থী বোর্ডের অভিবাসন বিভাগ (আইডি)-কে নির্দেশ দেন ফেডারেল কোর্ট। এরপর মন্ত্রণালয়ের এক প্রতিনিধি সিবিএসএ’র প্রতিবেদন রেফারেন্স হিসেবে তুলে ধরেন। এরপর বিএনপি’র বিরুদ্ধে অভিযোগগুলোর যৌক্তিকতা রয়েছে উল্লেখ করে ফেডারেল কোর্ট মোস্তফা কামালের আপিল আবেদন খারিজ করেন এবং তাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর নির্দেশ দেন।