মালয়েশিয়ায় ভোট গ্রহণ চলছে, গুরু-শিষ্যের লড়াই

 মালয়েশিয়ায় জাতীয় নির্বাচনের ভোট হচ্ছে। সকাল থেকেই রাজধানী কুয়ালালামপুরসহ বিভিন্ন সিটিতে ভোট কেন্দ্রগুলোতে দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়ছে।  এই নির্বাচনে গুরু-শিষ্যের লড়াই হচ্ছে। মাহাথির মোহাম্মদের নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোট এবং প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের জোটের মধ্যে। মাহাথির মোহাম্মদ ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানোর পরই প্রধানমন্ত্রী হন নাজিব। তাকে রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠার পেছনে মাহাথিরের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। একটি নিরপেক্ষ জরিপে নাজিব রাজাক জয় পাবেন বলে বলা হচ্ছে। খবর রয়টার্সের  বুধবার সকাল ৮ টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। নাজিবের জোট বারিসান ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স (বিএন) গত ছয় দশক ধরে মালয়েশিয়া শাসন করছে। এই জোটের প্রধান ছিলেন মাহাথির। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী নাজিবের দুর্নীতির কেলেঙ্কারি ফাঁস হওয়ার পর তিনি জোটের নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ান। তিনি সাবেক বিরোধী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের সঙ্গে জোট গড়ে তোলেন।   স্বাধীন জরিপ প্রতিষ্ঠান মারদেকা সেন্টার জানিয়েছে, নাজিবের জোট পার্লামেন্টের ২২২ আসনের মধ্যে ১০০ আসনে জয় পাবে। আর মাহাথিরের জোট পাবে ৮৩ আসন। ৩৭টি আসনে জোরালো প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। সরকার গঠন করতে অন্তত ১১২টি আসনের প্রয়োজন হয়। ২০১৩ সালের নির্বাচনে পপুলার ভোটে হারলেও ১৩৩ আসনে জয় পেয়েছিল ক্ষমতাসীন জোট।    মারদেকা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এবারের নির্বাচন হবে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত নির্বাচনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। সোমবার এক টেলিভিশন সাক্ষাত্কারে নাজিব আশা প্রকাশ করে বলেছেন, তার জোটই জয় পাবে। একই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন মাহাথির মোহাম্মদ।