বাজেট কাঁটছাট হচ্ছে প্রায় ২৯ হাজার কোটি টাকা

 লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী রাজস্ব আদায়  না হওয়ার কারণে বড় অঙ্কের কাটছাট করা হচ্ছে চলতি (২০১৭-২০১৮) অর্থবছরের  বাজেটে। ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে বাজেটের আকার রয়েছে চার লাখ ২৬৬ কোটি টাকা। সংশোধিত বাজেটের এর আকার প্রায় ২৯ হাজার কোটি টাকা কমানো হচ্ছে। ফলে চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট নির্ধারণ করা হচ্ছে তিন লাখ ৭১ হাজার ৪৯৫ কোটি টাকা। শতকরা হিসেবে বাজেটে কমছে সাত দশমিক ১৮ শতাংশ। যা কি না বিগত চার অর্থবছরের মত সবচেয়ে বেশি। সম্প্রতি  ‘আর্থিক, মুদ্রা ও মুদ্রা বিনিময় হার সংক্রান্ত কো-অর্ডিনেশন কাউন্সিলের’ বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে সংশ্লিস্ট সূত্রে জানা গেছে।
বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) বলেছে, চলতি অর্থবছরে রাজস্ব আদায়ের পরিমান লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫০ হাজার কোটি টাকা কম হবে। তবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সিপিডি’র তথ্যের সাথে দ্বিমত পোষণ করেছে। এনবিআর বলছে, লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বাজেট রাজস্ব ঘাটতি ২৫ থেকে ৩০ হাজার কোটি টাকা হতে পারে। বিভিন্ন বছরের বাজেট দলিল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গত ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে বাজেট কাটছাট করা  হয়েছিল প্রায় ২৩ হাজার কোটি টাকা।  ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরে যা ছিল  ২৬ হাজার কোটি টাকা। এবং ২০১৪-২০১৫ অর্থবছরে বাজেট কাটছাটের পরিমান ছিল ২১ হাজার কোটি টাকা। আর এবার এই হার বেড়ে হয়েছে প্রায় ২৮ হাজার ৭৭১ কোটি টাকা। অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এবারকার বড় অঙ্কের বাজেট সংশোধনের মূল কারণ লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী রাজস্ব আদায় করা সম্ভব হয়নি। চলতি অর্থবছরে বাজেটে রাজস্ব প্রাপ্তির লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে দুই লাখ ৮৭ হাজার ৯৯০ কোটি টাকা। কিন্তু সংশোধিত বাজেটে তা কমিয়ে নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে দুই লাখ ৫৯ হাজার ৪৫৪ কোটি টাকা। রাজস্ব প্রাপ্তির মধ্যে এনবিআর জন্য লক্ষ্য নির্ধারিত রয়েছে দুই লাখ ৪৮ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। কিন্তু অর্থবছর শেষে এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে না-এই পূর্বাভাষের কারণে এনবিআর রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা কমিয়ে  নির্ধারণ করা হয়েছে দুই লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরে সংশোধিত বাজেটে কর ব্যাতিত প্রাপ্তি ব্যাপক কমানো হয়েছে। মূল বাজেটে এখাত থেকে আয় ধরা হয়েছিল ৩১ হাজার ১৭৯ কোটি টাকা। সংশোধিত বাজেটে তা প্রায় ৫ হাজার কোটি কমিয়ে করা হয়েছে ২৬ হাজার ৯৫৪ কোটি টাকা। একই সঙ্গে বৈদেশিক অনুদানও কমানো হয়েছে প্রায় একহাজার কোটি টাকা। মূল বাজেটে বৈদেশিক অনুদান ধরা হয়েছিল ৫ হাজার ৫০৪ কোটি টাকা। কিন্তু সংশোধিত বাজেটে তা কমিয়ে করা হয়েছে ৪ হাজার ৪৫৭ কোটি টাকা।