গাজীপুর সিটি নির্বাচন হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে বিএনপি প্রার্থীর আপিল

 গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন ৩ মাসের জন্য স্থগিত করে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার।  সোমবার দুপুরে আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে তিনি আপিল করেন।  আপিলটি আজই চেম্বার বিচারপতির আদালতে উপস্থাপিত হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসান উদ্দিন সরকারের আইনজীবী সানজিদ সিদ্দিকী।   তিনি জানান, আবেদনের জন্য হলফনামা করতে বেলা ১১টার দিকে আদালতের অনুমতি নেয়া হয়। অনুমতি নিয়ে আবেদনটি দায়ের করা হয়েছে। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত তাকে এ অনুমতি প্রদান করেন।  এর আগে রবিবার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ছয়টি মৌজাকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করা গেজেট এবং গাজীপুর সিটি নির্বাচন সংক্রান্ত তফসিল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।  ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের ডোমনা, দক্ষিণ বাড়ৈবাড়ী, পশ্চিম পানিশাইল, দক্ষিণ পানিশাইল, শিবরামপুর ও ডোমনাগ মৌজাকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের আওতাভুক্ত করার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিটটি দায়ের করেছিলেন শিমুলিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা এ বি এম আজহারুল ইসলাম সুরুজ।  আদালত শিমুলিয়া ইউনিয়নের ৬টি মৌজাকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত করে জারি করা প্রজ্ঞাপন এবং গত ৩ এপ্রিল জারি ঘোষিত নির্বাচন কমিশনের তফসিলকে কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেছেন আদালত।  আগামী ৪ সপ্তাহের মধ্যে স্থানীয় সরকার সচিব, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার, স্থানীয় সরকার বিভাগের (সিটি করপোরেশন-২) উপসচিব, ঢাকা ও গাজীপুর জেলা প্রশাসক, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব (চলতি দায়িত্ব) ও গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।  এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচার জাফর আহমদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।  আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট বি এম ইলিয়াস (কচি)। তাদের সঙ্গে ছিলেন মামলার ফাইলিং আইনজীবী অ্যাডভোকেট সৈয়দ মো. রেজাউর রহমান রেজা। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মোখলেছুর রহমান।