গাজীপুর সিটি নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী হাসানের ১৯ দফা ইশতেহার ঘোষণা

 আসছে ১৫ মে অনুষ্ঠিতব্য গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের ১৯ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছেন।  বৃহস্পতিবার (৩ মে) সকালে তিনি এ ঘোষণা দেন।  এর আগে আসন্ন খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে বিএনপি প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জুর ১৯ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছেন। বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) সকালে তিনি এ ইশতেহার ঘোষণা করেন।   তারও আগে খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৩১ দফা ইশতেহার প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক। বুধবার (২৫ এপ্রিল) দুপুর ১২টায় অাওয়ামী লীগ নেতা এ দাবি জানান।  খুলনা সিটি করপোরেশন গঠিত হয়েছে ৩১টি সাধারণ এবং ১০টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড নিয়ে। এখানে মোট ভোটার ৪ লাখ ৯৩ হাজার ৪৫৪। খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে খুলনার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুস আলীকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।  এ সিটিতে মেয়র এবং কাউন্সিলর, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিলিয়ে মোট ১৯১ জন প্রার্থী নির্বাচনের চূড়ান্ত লড়াইয়ে মাঠে রয়েছেন। মেয়র প্রার্থী ৫ জন, ১৯টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১৪৮ জন কাউন্সিলর এবং চারটি সংরক্ষিত আসনে ৩৮ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।  মেয়র পদে যে ৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তারা হলেন- আওয়ামী লীগের তালুকদার আবদুল খালেক, ২০ দলীয় জোট ও বিএনপি মনোনীত নজরুল ইসলাম মঞ্জু, জাতীয় পার্টির এসএম শফিকুর রহমান মুশফিক, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের অধ্যক্ষ মাওলানা মুজ্জাম্মিল হক এবং বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবির মিজানুর রহমান বাবু।  উল্লেখ্য, অাগামী ১৫ মে গাজীপুর ও খুলনা সিটিতে দলীয় প্রতীকে ভোটগ্রহণ করবে নির্বাচন কমিশন। গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কঠোর অবস্থানে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এজন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে নির্বাচন অায়েজনকারী সাংবিধানিক এই সংস্থাটি। ভোটকন্দ্রের নিরাপত্তা ও ভোটারদের উপস্থিতি নির্বিঘ্ন করতে এ দুই সিটিতে পুলিশ, র‌্যাব ও আনসারের পাশাপশি ৪৫ প্লাটুন বিজিবি রাখার পরিকল্পনা করছে কমিশন। এর মধ্যে গাজীপুরে ২৯ প্লাটুন ও খুলনায় থাকবে ১৬ প্লাটুন বিজিবি।