সাভারে মহান মে দিবস পালিত

স্টাফ রিপোর্টার : মহান মে ও জাতীয় শ্রমিক দিবস উপলক্ষে শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ১৬ হাজার টাকাসহ ১০ দফা দাবিতে সাভার ও আশুলিয়ায় বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের ব্যানারে বিক্ষোভ, র‌্যালি ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার মহান মে ও জাতীয় শ্রমিক দিবস উপলক্ষে সকাল ৯টা থেকে বিকেল অবধি সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ড, আশুলিয়ার জামগড়া, ইউনিক, বাইপাইল, ডেন্ডাবর, নবীনগর, ডিইপিজেড ও বলিভদ্রসহ বিভিন্ন এলাকায় পোশাক শ্রমিক সংগঠন, রিক্সা ও ভ্যান শ্রমিক, নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন এবং হোটেল শ্রমিকদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে এ বিক্ষোভ, র‌্যালি ও সমাবেশ হয়।

মঙ্গলবার সকালে সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ডে, সকাল ৯টায় আশুলিয়ার আব্দুল্লাহপুর-বাইপাইল সড়কের জামগড়ায় ফ্যান্টাসি কিংডমের সামনে সমাবেশ ও বিক্ষোভ করে বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ইন্ডাষ্ট্রিয়াল শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ সেন্টার ফর ওয়ার্কার সলিডারিটির আশুলিয়া-ধামরাই ও সাভার আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি ইব্রাহিমের নেতৃত্বে, তুহিন চৌধুরীর নেতৃত্বে সম্মিলিত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, মিন্টু মিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র ও  জাতীয় শ্রমিকলীগের আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি আকবর হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেনের নেতৃত্বে আশুলিয়ার বিভিন্ন সড়কে বিশাল হোন্ডা ও ট্রাক ভর্তি শ্রমিকরা র‌্যালি করেন এবং বিপ্লবী শ্রমিক ফেডারেশন সমাবেশ ও বিক্ষোভ করেন।

সকাল সাড়ে ১০টায় বাইপাইল আশুলিয়া প্রেস ক্লাবের সামনের চত্বরে সমাবেশ করে বিপ্লবী শ্রমিক ফেডারেশন। এতে বক্তব্য রাখেন জাতীয় বিপ্লবী পার্টির সভাপতি নেতা আবুল কালাম আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক অরবিন্দু বেপারী(বিন্দু), মসিউর রহমান মিন্টু, মাহাবুব হাসান(মুক্ত)। বেলা ১২টায় বাইপাইল এলাকায় রিক্সা ও ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃত্বে সমাবেশ ও মিছিল হয়। বেলা সাড়ে ১২টায় বাইপাইল পুলিশ বক্সের সামনে সমাবেশ করে হোটেল শ্রমিকরা। বেলা ৩টায় জামগড়া ফ্যান্টাসী কিংডমের সামনে সমাবেশ করে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র ও সম্মিলিত শ্রমিক ফেডারেশন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রিয় নেতা এডভোকেট মন্টু ঘোষ।

এছাড়া সমাবেশ করে আশুলিয়া থানা নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন। এসকল বিক্ষোভ, র‌্যালি ও সমাবেশ এবং পথসভায় বক্তারা বলেন, বাঁচার মতো জাতীয় ন্যূনতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা নির্ধারণ করতে হবে, আই এল ও কনভেনশন ৮৭ ও ৯৮ এর ভিত্তিতে শ্রম আইন ও বিধিমালা সংশোধন করতে হবে, ইপিজেড সহ সকল সেক্টরে ট্রেড ইউনিয়ন করার অধিকার দিতে হবে, ইপিজেড শ্রমিকদের জন্য আলাদা আইন প্রয়োজন নেই, বাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৯১ সংস্কার ও বাস্তবায়ন চাই, শিল্পাঞ্চলে শ্রমিকদের জন্য সরকারি হাসপাতাল ও বিনামূল্যে চিকিৎসা দিতে হবে, কারখানা অভ্যন্তরে ও বাহিরে শ্রমিক নির্যাতন, মামলা ও হামলা বন্ধ করতে হবে।

তাছাড়াও শ্রমিকদের অধিকার আদায়ের জন্য ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য গুরুত্বারোপ করেন বক্তারা।এদিকে পহেলা মে উপলক্ষে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের মিছিলে অংশগ্রহণ কৃত কতিপয় উচ্ছৃঙ্খল শ্রমিক আশুলিয়ার শ্রীপুর এবং জামগড়া শিমুলতলা এলাকায় একটি মিষ্টির দোকান ও একটি খাবার হোটেল খোলা রাখার অভিযোগে ভাংচুর এবং মালামাল লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনায় ভুক্তভোগিরা থানায় অভিযোগ করবেন বলেও জানান হয়।