প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলে কোটা সংস্কার বিষয়ে প্রজ্ঞাপন

: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদেশ সফর থেকে ফেরার পর স্বল্প সময়ের মধ্যে সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।  অন্যদিকে কোটা সংস্কার আন্দোলন আবারও ৭ মে পর্যন্ত স্থগিত করছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।  শুক্রবার (২৭ এপ্রিল) রাতে কোটা সংস্কার আন্দোলনের সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ১৫ সদস্যদের একটি দলের সঙ্গে বৈঠকে জাহাঙ্গীর কবির নানক এই আশ্বাস দেন এবং সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ তাদের আন্দোলন ৭ মে পর্যন্ত স্থগিত করেছে।   বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক রাশেদ খান বলেন, জাহাঙ্গীর কবির নানকের সাথে তাদের আলোচনা পজিটিভ হয়েছে। যেহেতু প্রধানমন্ত্রী দেশের বাইরে তাই আপাতত কোনো আন্দোলনে যাবেন না তারা। উনি (প্রধানমন্ত্রী) দেশে ফিরলে কোটা বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। তাই আমরা আবারও ৭ মে পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করেছি।  পরিষদের আরেক আহ্বায়ক হাসান মামুন বলেন, বৈঠকে ভিসি স্যারের বাড়ির মামলাটি ছাড়া সকল অজ্ঞাতনামা মামলা প্রত্যাহার করা হবে বলে তারা জানিয়েছেন।  এর আগে রাত শুক্রবার ৯টার দিকে রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ সংলগ্ন ন্যাম ভবনে নানকের বাসায় এই বৈঠক শুরু হয়। এতে আন্দোলনকারীদের ১৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল অংশ নেয়।  উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে কোটা সংস্কার আন্দোলনের এই কেন্দ্রীয় কমিটি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিল, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে কোটা বাতিলের যে ঘোষণা দিয়েছেন তা চলতি মাসের মধ্যে প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করতে হবে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দাবি না মানলে আগামী মাস থেকে আবার আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তারা।