অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে বর্তমান সরকার

কোটি মানুষের বসবাস আমাদের এই বাংলাদেশে। জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে শান্তিপূর্ণভাবে বাস করছে এই দেশে। সকল ধর্মের সকল উৎসবে আজ নির্বিঘ্নে মেতে উঠছে সকল মানুষ। এখন আর ধর্মীয় উপাসনালয়ে হামলার ভয় নেই। এমনকি হিন্দুদের বা অন্য কোনো ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানে আনন্দে মেতে উঠতে দেখা যায়। কারণ ধর্ম যার যার উৎসব সবার।

দেশের সকল উৎসব আচার অনুষ্ঠান পালন করতে যাতে সাধারণ মানুষের কোন রকম বাধা বিপত্তিতে পড়তে না হয় এজন্য নিরাপত্তা আগের তুলনায় যথেষ্ট জোরদার করা হয়েছে। অফিস-আদালতে ব্যাবস্থা করা হয়েছে উৎসব ভাতা। ধর্মীয় উৎসবে পূজা মণ্ডপ বা উপাসনালয়ে থাকে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং সকল এলাকার মানুষ যাতে সহজেই শামিল হতে পারে এজন্য এলাকা ভিত্তিক পূজা মণ্ডপ বা উপাসনা কেন্দ্র স্থাপিত হচ্ছে।

কিছু দিন আগেই এলো বাংলা নতুন বছর ১৪২৫। সকল মানুষ মেতে উঠছিল প্রাণের উৎসবে। কোথাও কোনো রকম অপ্রীতিকর অনাকাঙ্খিত ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

আসন্ন রমজানকে সামনে রেখে নিত্য পণ্যের যথেষ্ট মজুদ রাখা হয়েছে। কোনো রকম কৃত্রিম সঙ্কট যাতে সৃষ্টি না হয় সেদিকে রয়েছে বাড়তি নজর। নিত্য পণ্য যাতে ক্রয় ক্ষমতার ভিতরে থাকে সেজন্য নেয়া হবে বাড়তি পদক্ষেপ।

আওয়ামী লীগ সরকারের হাত ধরে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার পথে। যেই স্বপ্নের বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলো জাতির পিতা আজ তার সুযোগ্য কন্যার অবদানে তা আজ বাস্তবায়িত হচ্ছে।