এবার খালেদা জিয়ার দেখা পেলেন না পরিবারের সদস্যরা

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে ফিরে এসেছেন তার পরিবারের সদস্যরা। শুক্রবার (২০ এপ্রিল) বিকাল ৪টার দিকে ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে যান তারা। কিন্তু কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি না পেয়ে অপেক্ষা করে ফিরে আসতে হয়েছে তাদের। বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ফাইয়াজ শুভ বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। জানা গেছে, খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন তার বোন সেলিমা ইসলাম বিউটি, ভাই শামীম ইস্কান্দারের ছেলে অভীক ইস্কান্দার, ছেলে তারেক রহমানের শাশুড়ি সৈয়দ ইকবাল মান্দ বানু ও তার বড় মেয়ে।  বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ফাইয়াজ শুভ বলেন, ‘দেশনেত্রীর স্বাস্থ্যের অবস্থা এখন খুবই খারাপ। কিন্তু কারা কর্তৃপক্ষ কোনও চিকিৎসা দিচ্ছে না তাকে। তার কিছু হয়ে গেলে এর দায়-দায়িত্ব সরকারের। এজন্য জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে সরকারকে।’ পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছিলেন তার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি, দুই নাতনি জাফিয়া ও জাহিয়া। গত ১৬ এপ্রিল এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘আগে পরিবারের সদস্যদের সাতদিন পর পর বেগম জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হলেও এখন ১০ দিন পর দেখা করার নির্দেশ হতে যাচ্ছে। এর উদ্দেশ্যই হচ্ছে তাকে মানসিকভাবে যন্ত্রণা দেওয়া।’ এর আগে বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ স্থায়ী কমিটির দুই সদস্য মির্জা আব্বাস ও নজরুল ইসলাম খান। কিন্তু আধঘণ্টা অপেক্ষার পরও প্রবেশের অনুমতি মেলেনি তাদের।  তখন বিএনপি মহাসচিব সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমরা সাক্ষাতের জন্য আগেই অনুমতি চেয়েছিলাম। গত পরশু (১৭ এপ্রিল) আমাদের একটা সময় দেওয়া হয়েছিল। তারপর তা বাতিল করে বৃহস্পতিবার সময় দেওয়া হয় বিকাল ৩টা থেকে ৪টার মধ্যে। কিন্তু কারাগারে আসার পরে আমাদের বলা হলো, আজও সম্ভব হচ্ছে না। কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, আগামী দুই-একদিনের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে আমাদের সাক্ষাৎ হতে পারে।’