সাভারে চাপাইন গ্রামে দুই ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার: সাভারে চাপাইন গ্রামে এক যুবক ও অপর এক কিশোরকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে দুবৃত্তরা। তারা হলেন মজনু (২২)  ও শাহরুক (১৪)। এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার সময়  নিয়মিত আড্ডার অংশ হিসেবে কয়েক কিশোর যুবক  চাপাইন নিউ মডেল স্কুলের মাঠে আড্ডা দিচ্ছিল। এক পর্যায়ে তাদের ডাক চিৎকার শুনে পাশ্ববর্তী বাসিন্দারা এগিয়ে গিয়ে মাটিতে পড়ে থাকা রক্তাক্ত মজনুকে উদ্ধার করে। সে স্থানীয় আতাউর রহমানের বাড়ীতে ভাড়া থেকে একটি গার্মেন্ট কারখানায় চাকুরি করেন। তার শরীরে একাধিক ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরনের ফলে তার অবস্থা গুরতর। সন্ত্রাসী হামলায় কিশোর শাহরুকের দুটি দাত পড়ে গেছে বলে জানান তার পিতা। তাদের উভয়কে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে শাহীবাগ এলাকার নিউ মডেল স্কুলে নবম শ্রেনীর ছাত্র। এলাকার যুবক সালাউদ্দিনসহ কয়েকজন তাদেরকে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সালাউদ্দিন জানান দীর্ঘ সময় আহত মজনু মাটিতে পড়েছিল। ছুরিকাঘাতে গুরতর আহত এবং পুলিশ কেইস বিধায় কেউ তাকে হাসপাতালে নিতে রাজি হচ্ছিল না। পরে একটি অটোরিক্সা নিয়ে সে আরও ২/৩জন আহত মজনুকে নিয়ে এনাম মেডিকেলে যান। আহত শাহরুকের দুটি দাত ভেঙ্গে যাওয়ায় সে কথা বলতে পারছেন না। শাহরুকের পিতা জমি ব্যবসায়ি সাইদুর রহমান এ রিপোর্ট লেখার সময়(রাতে পৌনে ১১টায়) জানান দুটি দাত ভেঙ্গে যাওয়ায় অপারেশন থিয়েটারে অস্্রপাচার চলছে। তার ছেলে কথা বলতে পারছেনা।  হাসপাতালের বেডে শুয়ে কাগজে লিখে সে জানায় সিআরপি এলাকার তাদের পরিচিত সোহান ও তার সহযোগীরা এ হামালার সাথে জড়িত। সোহানের পিতার নাম জুয়েল। এ ঘটনায় সাভার থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।