সাজা বাড়ানোর রুল : খালেদার পক্ষে লড়বেন ৩শ’ আইনজীবী

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা বাড়ানোর জন্য জারি করা রুলের উপর শুনানি করতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে লড়তে ওকালত নামায় স্বাক্ষর করেছেন আইনজীবীরা। আইনজীবীদের স্বাক্ষরের পর তা গতকাল মঙ্গলবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় দাখিল করা হয়েছে।  বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী প্যানেলের সদস্য ও বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল। তিনি বলেন, ‘সিনিয়র আইনজীবীসহ অসংখ্যা আইনজীবী রয়েছেন বেগম খালদা জিয়ার পক্ষে লড়াই করার জন্য। তাদের সংখ্যা তিন শতাধিক হবে।’   ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, আইনজীবীদের তালিকা সম্বলিত ওকালতনামা আমি নিজে জমা দিয়েছি। এখন রুলের শুনানিতে খালেদা জিয়ার পক্ষে অংশ নেবেন ওকালত নামায় স্বাক্ষরকারী আইনজীবীরা। খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধির জন্য হাইকোর্ট ইতোপূর্বে যে রুল জারি করেছিলেন তা আইনগতভাবে মোকাবেলা করার জন্য আইনজীবীরা প্রস্তুত রয়েছেন।  তিনি আরও বলেন, ওকালত নামা অনুযায়ী খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী হিসেবে মামলায় লড়বেন অন্য আইনজীবীদের মধ্যে রয়েছেন সাবেক স্পিকার ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, সাবেক আইনমন্ত্রী ও স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদআহমদ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এ জে মোহাম্মাদ আলী, সাবেক অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুর রেজাক খান, সাবেক মন্ত্রী ও ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আমিনুল হক, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির বর্তমান সভাপতি ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান জয়নুল আবেদীন, সাবেক মন্ত্রী ও ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাসির, সাবেক মন্ত্রী ও ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধরী।  চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈয়মুর আলম খন্দকার, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ও দলের যুগ্ম-মহাসিচব ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকন, বারের সাবেক সম্পাদক ও বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার বদরোদ্দোজা বাদল, বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ তালুকদার, ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম সজল, অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট আকতারুজ্জামান, অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান, অ্যাডভোকেট সগীর হোসেন লিওন, ব্যারিস্টার এহসানুর রহমান, মির্জা আল মাহমুদ জাকির হোসেন ভুঁঞাসহ প্রায় তিন শতাধিক আইনজীবী।  খালেদা জিয়ার দণ্ড থেকে খালাস পাওয়ার জন্য করা আপিল আবেদনের শুনানিতে ৫৩ জন আইনজীবী নিয়োগ দিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তখন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদকে প্রধান করে করা আইনজীবী প্যানেলের ৫৩ সদস্যই ওকালতনামায় স্বাক্ষর করেছিলেন।  এর আগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৮ মার্চ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা কেন বৃদ্ধি করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করে হাইকোর্ট। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।