ধামরাইয়ে চলন্ত বাসে পোশাক শ্রমিককে গণধর্ষণ, আটক ৭

ধামরাই প্রতিনিধি : ধামরাইয়ে এক নারী পোশাক শ্রমিককে চলন্ত বাসে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে বাসের চালক ও সহকারীসহ মোট সাতজনকে আটক করেছে ধামরাই থানা পুলিশ।  রোববার দিবাগত রাত ১২টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ের কচমচ এলাকা থেকে চলন্ত বাস থামিয়ে ওই নারী পোশাক শ্রমিককে উদ্ধারসহ অভিযুক্তদের আটক করা হয়।  ধামরাই থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মলয় সাহা জানান, কারখানায় কাজ শেষে ধামরাইয়ের ইসলামপুর থেকে গত রাতে যাত্রীসেবা নামের একটি লোকাল যাত্রীবাহী বাসে ওই নারী পোশাক শ্রমিক উঠেন। বাসটি ধামরাইয়ের কালামপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছালে পাঁচজন যাত্রী ব্যতীত সকল যাত্রী নেমে যায়। এরপর বাসের চালকের সহকারী বাসের দরজা বন্ধ করে দেন এবং চালক বাসটি মহাসড়কে উদ্দেশ্যহীনভাবে চালাতে শুরু করেন। পরবর্তীকালে ওই পাঁচ যাত্রীবেশী যুবকসহ বাকিরা নারী শ্রমিককে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালান। এদের মধ্যে চালকসহ পাঁচজনের দ্বারা ধর্ষণের শিকার হন ওই নারী। এ সময় ওই নারীর ডাক-চিৎকারে একটি পেট্রোল পাম্পের কর্মীরা বিষয়টি বুঝতে পেরে ধামরাই থানা পুলিশকে খবর দেয়।  সংবাদ পাওয়ার পর পুলিশের চারটি পৃথক দল বাসটি ধাওয়া করে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের কচমচ এলাকা থেকে আটক করে এবং ভুক্তভোগী নারীকে উদ্ধার ও যাত্রীবেশে চালকের সহযোগী ওই সাতজনকে আটক করে।  আটকদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়েরের পর রিমান্ড আবেদন করে দুপুরে আদালতে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।