নির্বাচনের জন্য মালয়েশিয়ার পার্লামেন্ট বিলুপ্ত ঘোষণা

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক দেশটির নির্বাচনের জন্য পার্লামেন্ট বিলুপ্তির ঘোষণা দিয়েছেন। ক্ষমতার পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হওয়ার দুই মাস আগেই শুক্রবার টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে তিনি এ ঘোষণা দেন। দেশটিতে ব্যাপক আর্থিক কেলেঙ্কারি ও তার এক সময়ের পরামর্শ দাতা এবং সাবেক নেতা মাহাথির মোহাম্মাদের চ্যালেঞ্জের কারণে এই নির্বাচন হবে তার ক্ষমতাসীন জোটের জন্য কঠিন পরীক্ষা। খবর এএফপি’র। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে নাজিব বলেন, ‘আমি দেশবাসীকে অবহিত করছি যে ৭ এপ্রিল শনিবার পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেয়ার জন্য আমি রাজার সঙ্গে সাক্ষাত করে তার অনুমতি চেয়েছি।’ তিনি বলেন, আমরা মানুষের সেবা করেছি। ভবিষ্যতেও আপনাদের সেবা করে যাব। আরও পাঁচ বছর দেশ শাসন করার জন্য আপনাদের সমর্থন চাচ্ছি। পার্লামেন্ট বিলুপ্তির ৬০ দিনের মাথায় দেশটির জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এখন নির্বাচন কমিশন ভোটের দিন তারিখ ঠিক করতে বৈঠকে বসবে। ১৯৫৭ সালে ব্রিটিশদের কাছ থেকে মালয়েশিয়া স্বাধীন হওয়ার পর থেকে দেশটির ক্ষমতায় রয়েছে বারিসান নাসিওনাল জোট। কিন্তু নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে সরকারি কোষাগার থেকে কোটি কোটি ডলার অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য ঊর্ধ্বগতিতের সরকারের প্রতি মানুষের চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন দেশে অর্থপাচারের অভিযোগের তদন্ত চলছে। দাবি করা হয়, লুট হওয়া বিশাল অঙ্কের অর্থ নাজিব রাজাকের ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাবে জমা পড়েছে। এ অবস্থায় সব মিলিয়ে গত ৬০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষার মুখে রয়েছে ক্ষমতাসীনরা।