সাতক্ষীরায় বিজিবির গুলিতে ‘চোরাকারবারীর’ মৃত্যু

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা : সাতক্ষীরার কলারোয়া কাকডাঙ্গা সীমান্তে বিজিবির ছোড়া গুলিতে আহত ‘চোরাকারবারী’ নজরুল ইসলাম চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে খুলনা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে মারা গেছেন। নিহত চোরাকারবারী নজরুল ইসলাম কাকডাঙ্গা গ্রামের মৃত রকিব দালালের ছেলে। আইনি প্রক্রিয়া শেষ করে নিহত নজরুলের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানা গেছে। উল্লেখ্য, গত ১ এপ্রিল রোববার রাতে একদল চোরাচালানী ভারত থেকে অবৈধপথে শাড়ি পাচার করে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে সীমান্তে কেড়াগাছি আমতলার মোড়ে অবস্থান নেয়। এ সময় টহলরত বিজিবির হাবিলদার আকরাম ও ল্যান্স নায়েক মানিকের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাচালানীরা বিজিবির উপর হামলা চালায়। পরে বিজিবি আত্মরক্ষার্থে চোরাকারবারীদের লক্ষ্য করে ১ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। বিজিবির ছোড়া গুলিতে এক চোরাকারবারী গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থাল থেকে ১ রাউন্ড গুলির খোঁসা ও ২ গাইড ভারতীয় চোরাচালানী শাড়ি উদ্ধার করে বিজিবি। এদিকে, আহত অবস্থায় পরিবারের লোকজন নজরুলকে খুলনা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহতের পরিবারের সদস্যরা মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ঘটনার রাতে থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। এ বিষয়ে কলারোয়া থানার ওসি বিপ্লব কুমার নাথ বলেন, সেদিন চোরাকারবারী নজরুল ইসলাম গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এমন বিষয় আমাকে কেউ অবহিত করেনি। তাছাড়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে বিষয়টি আমার জানা নেই।