পূর্ব-পশ্চিমের দ্বন্দ্ব চরমে, মস্কো থেকে দেড় শতাধিক কূটনীতিক বহিষ্কার

ফুলকি ডেস্ক : যুক্তরাজ্যে এক গুপ্তচরকে বিষপ্রয়োগ নিয়ে রুশ কূটনীতিকদের বহিষ্কারের প্রতিক্রিয়ায় রাশিয়াও পশ্চিমা দেড়শ’ কূটনীতিককে বহিষ্কার এবং সেন্ট পিটার্সবার্গে দেশটির কনস্যুলেটের কার্যক্রম বন্ধ করেছে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বৃহস্পতিবার এ ঘোষণা দেন। এদের মধ্যে ৬০ কূটনীতিকই যুক্তরাষ্ট্রের। মার্কিন কূটনীতিকদের আগামী ৫ এপ্রিলের মধ্যে রাশিয়া ত্যাগ করতে বলা হয়েছে। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

গত সোমবার ৬০ রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কারের পাশাপাশি সিয়াটলে রাশিয়ার কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর পাল্টা হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকদের বহিষ্কার ও কনস্যুলেট বন্ধের বিষয়ে দেশটির রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন লাভরভ। গত ৪ মার্চ ব্রিটেনের সলসবেরির উইল্টশায়ারে একটি পার্কের বেঞ্চ থেকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পক্ষত্যাগী সাবেক রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল (৬৬) এবং তার মেয়ে ইউলিয়াকে (৩৩) উদ্ধার করা হয়। তাদের নোভিচক গ্রুপের একটি নার্ভ এজেন্ট দেয়া হয়েছিল বলে পরীক্ষায় জানা যায়। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন সত্তর ও আশির দশকে এ সিরিজের নার্ভ এজেন্টগুলো তৈরি করেছে। সেগুলো সবচেয়ে মারাত্মক নার্ভ এজেন্ট (উচ্চ-ক্ষমতাসম্পন্ন বিষাক্ত রাসায়নিক) হিসাবে বিবেচিত হয়ে থাকে। মস্কোর নির্দেশেই স্ক্রিপাল ও তার মেয়েকে বিষপ্রয়োগে হত্যার চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ যুক্তরাজ্যের। তাদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে ২০টির বেশি দেশ থেকে রুশ কূটনীতিকদের বহিষ্কার করা হয়েছে।