আশুলিয়ায় যুবলীগ নেতার হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে মুখোশ পরিহিত সন্ত্রাসীরা

আশুলিয়া ব্যুরো : আশুলিয়ায় যুবলীগ নেতা সাফায়াত হোসেন (৩৫)কে মুখোশ পরিহিত সন্ত্রাসীরা পিটিয়ে দিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে। পরে এলাকাবাসী মারাত্মক আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে। তার অবস্থা সঙ্কটাপন্ন। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৮টারদিকে আশুলিয়ার ডিইপিজেড পুরাতন জোনের বিপরীতে হাসেম প্লাজা সংলগ্ন ভাদাইল রোডে। রিক্সাযোগে বাসায় ফেরার পথে এ হামলার শিকার হন তিনি।

আহত সাফায়াত আশুলিয়া-বাঘেরহাট সমিতির সভাপতি ও বাঘেরহাট বড়বাড়িয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি। সে আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকায় ভাড়া থেকে জমি ও ঝুট ব্যবসা করতো।

এ ব্যাপারে প্রত্যক্ষদর্শী তার সহকর্মী সেলিম ও পরিবার সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ভাদাইল রোডের মহব্বত আলী মাস্টারের ভাড়া বাড়িতে রিক্সাযোগে সহকর্মী সেলিম মিয়ার সাথে যাওয়ার পথে ৭/৮ জনের একটি দল মাথায় হেলমেট ও মুখোশ পরিহিত সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। হামলায় সাফায়াতের পা ও হাত ভেঙ্গে গেছে। তাকে অচেতন অবস্থায় সহকর্মী সেলিম ও প্রতিবেশিরা উদ্ধার করে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন। হামলাকারীদের হাত থেকে রক্ষা পেতে সহকর্মী সেলিম এসময় দৌঁড়ে গিয়ে একটি দোকানে আশ্রয় নেয়। পরে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় অচেতন অবস্থায় সাফায়াত ও সেলিমকে নিরাপত্তায় নেয় এবং চিকিৎসার জন্যে পাঠায়। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দিয়েছে ভুক্তভোগিদের স্বজনরা।

প্রত্যক্ষদর্শী ও সহকর্মী সেলিম আরো বলেন, আশুলিয়ায় ব্যবসা সংক্রান্ত কোন বিরোধকে কেন্দ্র করে হয়তোবা ক্ষুব্ধ কোন সন্ত্রাসীরা এ হামলা চালিয়ে সাফায়াতকে হত্যার উদ্দেশ্যে হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে। মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে তাকে ফেলে রেখে গেছে সন্ত্রাসীরা।

জানতে চাইলে আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল বলেন, সাফায়াত নামে কাউকে চিনি না এবং এ ঘটনায় কোন অভিযোগ থানায় হয়নি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার কথাও জানান তিনি।