বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশ ঘোষণা, যা বলল আ’লীগ নেতারা

স্টাফ রিপোর্টার : স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বেরিয়ে আসছে বাংলাদেশ। জাতিসংঘ এখন বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিতে যাচ্ছে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে।

এ জন্য বাংলাদেশ তিনটি নির্ণায়ক (ক্রাইটেরিয়া) পূরণ করেছে। নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে এক বৈঠকে এ ঘোষণা দিয়েছে জাতিসংঘ প্যানেল কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি। এই স্বীকৃতি নিয়ে রাজনৈতিক ময়দানে চলছে নানান আলোচনা।

ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা এই স্বীকৃতিকে সাধুবাদ জানালেও বিএনপি থেকে বলা হচ্ছে অন্য কথা। এই নিয়ে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিয়েই যাচ্ছে দুই দলের নেতাকর্মীরা। এই স্বীকৃতি নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে আওয়ামী লীগের নেতারা বিভিন্ন কথা বলেছেন।

তা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো- আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ সোমবার দুপুরে বলেছেন, ‘উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে ধরে রাখতে সরকার বদ্ধপরিকর। এই স্বীকৃতি ধরে রাখতে সব করবে সরকার।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, ‘দেশ এখন উন্নয়নশীলে পরিণত হচ্ছে। জাতিসংঘ বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিতে যাচ্ছে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারণেই আজ এই অর্জন। এরইমধ্যে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে এক বৈঠকে এ ঘোষণা দিয়েছে জাতিসংঘ প্যানেল কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি।’ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বাংলাদেশ জন্ম লগ্ন থেকেই একটি স্বল্পোন্নত দেশ ছিলো।

যদি বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকতেন বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার দশ বছর পরই পৃথিবীর মানুষ বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিতেন।

যা বঙ্গবন্ধু করতে পারেননি সেই কাজটি তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করেছেন। আজ বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ কিংবা মধ্য আয়ের দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। অথচ বিএনপি বলছে, বাংলাদেশ অন্ধকারের দিকে যাচ্ছে। এতেই বুঝা যায়, তাদের বক্তব্য রাজনৈতিক ধারাবাহিক বক্তব্য। এটা বিএনপির জন্য ব্যর্থতা ও হীনমন্যতা।

’ তার আগে গত মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সমাপনী আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘ইচ্ছা থাকলে একটি সরকার দেশের উন্নয়ন করতে পারে আমরা তা প্রমাণ করেছি।

বাংলাদেশ আজ সবদিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবেই। আমরা প্রমাণ করেছি ও বারবার অগ্নিপরীক্ষা দিয়েছি যে দুর্নীতি করতে নয়, জনগণের ভাগ্য গড়তেই আমরা রাজনীতি করি, দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।

আগামী মার্চে বাংলাদেশ আরও একধাপ এগিয়ে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পাচ্ছে। বাঙালি জাতি বীরের জাতি, আমরা যুদ্ধ করে দেশকে স্বাধীন করেছি। তাই আমরা নিম্ন বা মধ্যম নয়, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তুলবোই।’