উত্তরা গণভবনের পাশের বাড়িতে অভিযানে ৪ ‘জেএমবি’ সদস্য আটক

নাটোর সংবাদদাতা : নাটোর শহরতলির দিঘাপতিয়া এলাকায় উত্তরা গণভবনের পাশের বাড়ি থেকে চার ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, এরা নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য।  মঙ্গলবার ভোরে উত্তরা গণভবনসংলগ্ন একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এদের আটক করে পুলিশ।  এর আগে সোমবার দিবাগত রাত ৩টা থেকে ওই বাড়ি ঘিরে ফেলা হয়। পরে মঙ্গলবার ভোরে অভিযান শুরু করে পুলিশ।   আটক চারজন হলেন—নাটোরের সিংড়া উপজেলার আরকান্দি গ্রামের আনিসুর রহমান আনিস, বাগাতিপাড়া উপজেলার চাপাপুকুর গ্রামের শফিকুল ইসলাম ও ফজলুর রহমান এবং নলডাঙ্গা উপজেলার খোলাবাড়িয়া গ্রামের জাকির হোসেন।  জেএমবির সদস্যরা গোপন বৈঠক করছে বলে পুলিশের কাছে তথ্য আসে। এ খবরের ভিত্তিতে ওই বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে গিয়ে দেখা যায়, নির্জন বাড়িটির চারদিকে শক্ত সীমানাপ্রাচীর রয়েছে। রাত ৩টার দিকে বাড়িটি ঘিরে ফেলা হয়। এরপর ভোর হলে জেএমবি সদস্যদের আত্মসমর্পণ করতে বলেন পুলিশ সদস্যরা। সে সময় বাড়ির ভেতরে থাকা একজন পুলিশের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর ওই বাড়িতে থাকা চার জেএমবি সদস্য আত্মসমর্পণ করেন।  নাটোরের পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার বলেন, পুলিশ বাড়িটিতে তল্লাশি চালিয়ে পাঁচটি হাতবোমা, পেট্রল, একটি ল্যাপটপ, একটি মোটরসাইকেল, সাংগঠনিক বইসহ বিভিন্ন সামগ্রী উদ্ধার করেছে। প্রবাসী ইকবাল ও রফিকুল ইসলামের ওই বাড়ি জনৈক আমির হামজা ভাড়া নিয়েছিল।  আটক চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে জানান বিজয় তালুকদার।