সৈরাচার—মো: ইব্রাহীম খলিল

 

সুশীল ওরা বাংলা জানে

ইট পাথরের চার দেয়ালে

কুকুর পোষে তবু,

বস্ত্রহীন যে বাস্তুহারা

রাস্তার ধারে ঘুরছে যারা

অসহায় ঐ পথশিশুর-

খাবার দেয় না কভু।

ধর্ম বুঝে ওরা কর্ম জানে

দেশ পরিবার সকল স্থানে

নাম করেছে বেশ!

শিক্ষাগুণে ন্যায় নীতিবান

অর্থবলে সাজ যে ভগবান

কেমন করে গড়বে ওরা

সোনার বাংলাদেশ।

বাংলিশ ওদের মুখের বুলি

মিথ্যে কথার শ্রেষ্ঠ ঝুলি

স্বার্থে চলে পথ,

কৃষক মাঠে ফসল ফলে

লোকসান গুণে নিত্য ছলে

কথার প্যাঁচে ছাড়ছে বুলি

আপন মতামত।

মজুরের ধন লুটে যারা

গামের মূল্য দেয় কি তারা

গোপন ওদের ক্যাশ,

ব্যস্ততা রোজ সঙ্গী তাদের

কোটপ্যান্টে হয় মান যাদের

কেমন করে গড়বে ওরা

সোনার বাংলাদেশ।

কলকারখানা গড়ছে যত

বিলাসবহুল ইচ্ছে মত

নামের বিত্তবান,

রঙ্গলিলা হচ্ছে যে রোজ

মাছ মাংসতে করছে যে ভোজ

ললিতাদের টানছে বুকে

স্বার্থে করে দান।

সরলতায় করছে আঘাত

গল্প জমে নিত্য প্রভাত

কথার নেই ত রেশ,

শ্রমিক নাকি গোলাম তাদের

লাজলজ্জা ঐ নেই ক যাদের

কেমন করে গড়বে ওরা

সোনার বাংলাদেশ।