ধর্মান্ধরাই ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলা করেছে: প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার:: ‘ধর্মান্ধরাই ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলা চালিয়েছে। যারা হামলা করেছে তারা জীবনেও বেহেশতে যাবে না’ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় তিনি বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের কোনো স্থান নেই বলে জানান।  রবিবার সকালে বিজ্ঞানী ও গবেষকদের অনুদান প্রদানে উপলক্ষে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ থেকে আমাদের সন্তানদের দূরে রাখতে হবে। ছেলেমেয়েরা কী করছে তা জানতে হবে। শিক্ষকদের পাশাপাশি বাবা-মাকেও সন্তানদের প্রতি আরও যত্নবান হতে হবে। আরও সহনশীল হতে হবে। আমরা বলেছি দেশে কোনো রকম জঙ্গিবাদ চলতে দিবো না। আমি শিক্ষক-অভিভাবক সবাইকে আহ্বান জানায় মাদক ও জঙ্গিবাদ থেকে সন্তানকে মুক্ত রাখতে হবে। এই ব্যাপারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।’   তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, সামনে আরও এগিয়ে যাবে। আকাশেও পৌঁছাতে হবে বাংলাদেশকে। এজন্যই স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের প্রজেক্ট হাতে নেয়া হয়েছে। আগামী মাসেই এটি উৎক্ষেপণ করা হবে। ফ্লোরিডার স্টেশন, যেখান থেকে এটি উৎক্ষেপণ করা হবে সেখানে প্রাকৃতির দুর্যোগ লেগেই থাকে। তবে আমরা সময়মতোই এগোচ্ছি।’  তিনি আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ট্রাস্ট এর মাধ্যমে প্রায় ১৬০০-এর ওপরে শিক্ষার্থী প্রতি মাসে শিক্ষাবৃত্তি পাচ্ছে। একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের পরিবারের প্রায় ১৮০০ জনকে আমরা প্রতিমাসে অনুদান দেই। তবে আমরা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেই শিক্ষাকে।’  এসময় তিনি বলেন, ‘এবছর জানুয়ারি মাসে ৩৫ কোটি ৪২ লাখ ৯০ হাজার ১৬২টি বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিয়েছি। স্কুল-কলেজগুলো উন্নত করতে কাজ করে যাচ্ছি। তবে অংক, বিজ্ঞান ও ইংরেজির শিক্ষক পাওয়া মুশকিল। কারণ যারা এসব বিষয়ে ভালো তারা রাজধানীতে চলে আসতে চায়।’  প্রসঙ্গত, শনিবার বিকালে সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবি) ক্যাম্পাসে এক অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থী ও পুলিশের উপস্থিতিতে জাফর ইকবালের ওপর হামলা হয়। ছুরি দিয়ে এই লেখক-অধ্যাপকের মাথায় আঘাত করে হামলাকারী।  বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ওই হামলার পরপর জাফর ইকবালকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে তার ক্ষত স্থান পরিষ্কার করে সেখানে সেলাই দেয়া হয়েছে। এরপর অধ্যাপক জাফর ইকবালকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে সিলেট থেকে ঢাকার সিএমএইচ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।