খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: অলি আহমদ

ঐক্যবদ্ধ হতে না পারলে আন্দোলন সফল হবে না। কারণ বর্তমান সরকার সহজে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেবে না।খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে হলে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন এলডিপি সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ।  সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে স্বাধীনতা অধিকার আন্দোলন আয়োজিত ‘খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ও সংকটে আগামী জাতীয় নির্বাচন’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় অলি এসব কথা বলেন।  এলডিপি সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বলেছেন, খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে হলে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে- খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে বিএনপি ও ২০ দল নির্বাচনে অংশ নেবে কিনা? কারণ এখন ঐক্যবদ্ধ হতে না পারলে আন্দোলন সফল হবে না। কারণ বর্তমান সরকার সহজে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেবে না।   জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমানের কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলেও মন্তব্য করে তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।  এলডিপি সভাপতি আরও বলেন, তৎকালীন সেনাসমর্থিত সরকারের সময় অনেক রাজনৈতিক নেতার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। বর্তমান সরকারের অনেক নেতার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে; কিন্তু রাজনৈতিক বিবেচনায় তাদের মামলাগুলো পরিহার করা হয়েছে। আর খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মামলাগুলো চালু রেখে তাদের হয়রানি করা হচ্ছে।  ‘দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত হয়ে বর্তমান সরকারের অনেক মন্ত্রী-এমপি সপদে বহাল আছেন, তাদের কারাগারে যেতে হয়নি। কিন্তু খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে নির্জন কারাগারে পাঠানো হয়েছে’, বলেন সাবেক এ মন্ত্রী।  খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা আমাদের জন্য এখন সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাই শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে তাকে কারাগার থেকে মুক্ত করে আনতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই বলে মনে করেন তিনি।  সংগঠনের সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান মনির সভাপতিত্বে গোলটেবিল আলোচনায় আরও বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম, এলডিপির যুগ্ম সম্পাদক শাহাদাত হোসেন সেলিম।  সরকার গোটা দেশের মানুষকে অপমান করেছে: কর্নেল অলি আহমদ ‘খালেদা জিয়া তিনবারের প্রধানমন্ত্রী, দুইবারের বিরোধীদলীয় নেত্রী, সাবেক রাষ্ট্র ও সেনাপ্রধানের স্ত্রী। তাকে সাজা দিয়ে নির্জন কারাগারে না পাঠিয়ে তার বাসভবনকে সাব-জেল করা যেত। কিন্তু সরকার তা না করে তাকে পুরান ঢাকার একটি নির্জন কারাগারে পাঠিয়েছে। এর মাধ্যমে সরকার গোটা দেশের মানুষকে অপমান করেছে।’ বলে মন্তব্য করেছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলী আহমদ বীর বিক্রম।  শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) ড. অলী আহমদ বীর বিক্রম।  ২০ দলীয় জোটের এই নেতা বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে নির্জন কারাগারে পাঠিয়ে দেশের মানুষকে বেইজ্জতি করেছে সরকার। তাকে যেখানে রাখা হয়েছে সেটি তার জন্য নয়। তার সঙ্গে যে অন্যায় করা হয়েছে এর জবাব দেশের মানুষ একদিন দিবে।’  কর্নেল অলি আহমদ আরো বলেন, আমি দেশের মানুষকে আহ্বান জানাব কোনো সহিংসতা নয়, দেশের ক্ষতি হয় এমন কোনো কর্মসূচি নয়, আপনারা বিএনপি ও ২০ দলের নেতৃত্বে গণতন্ত্র উদ্ধারের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে রাজপথে নেমে আসুন। এটা আপনাদের দায়িত্ব, কাউকে ভয় করবেন না। আমরা চাই, এ দেশ সুষ্ঠু, সুন্দর ও স্বাধীনভাবে চলুক।