ছিনতাইকারীর হাতে আহত অরুনীমা হেরেই গেলেন মৃত্যুর কাছে

ফরিদপুর সংবাদদাতা : টানা পাঁচদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে মৃত্যুর নীল থাবার কাছে আত্মসমর্পণ করলেন ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাসিং সুপারভাইজার অরুনীমা বিশ্বাস (৪৫)। বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ অধ্যক্ষ ডা. খবিরুল ইসলাম। এর আগে ১৭ ফেব্রুয়ারি সকালে ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে গুরুতর আহত হন অরুনীমা। টানা পাঁচদিন রাজধানীর নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল তাকে। অরুনীমা বিশ্বাস ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ফমেক) নাক-কান-গলা বিভাগের চিকিৎসক নৃপেন্দ্র নাথ বিশ্বাসের স্ত্রী। তিনি দুই সন্তানের জননী ছিলেন। তার বাবার বাড়ি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানি থানার ভাটিয়াপাড়ায়। শ্বশুরবাড়ি ঝিনাইদহ জেলার শৈলকূপায়। দীর্ঘদিন ওই দম্পত্তি ফরিদপুরে চাকরির সূত্রে পরিবার নিয়ে ঝিলটুলীর জুবলী ট্যাংকের মোড়ে নিজেদের ফ্লাটে বাস করতেন। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে ফরিদপুর সদর উপজেলা ভূমি অফিসের সামনে দুই ছিনতাইকারী রিকশায় থাকা অরুনীমার ব্যাগ ধরে হেঁচকা টান দিলে তিনি পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন। সেখান থেকে তাকে ফরিদপুরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি হলে ওইদিন দুপুর পৌনে ১২দিকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকার নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজিমউদ্দিন জানান, ছিনতাইয়ের এ ঘটনায় এখনো থানায় কোনো মামলা হয়নি। তিনি আরও জানান, আহত রোগী নিয়ে পরিবারের স্বজনরা ঢাকায় ব্যস্ত থাকায় মামলা দায়ের করা সম্ভব হয়নি পরিবারের পক্ষে।