খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করুন: ফখরুল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করতে সরকারের প্রতি আহবার জানিয়েছেন বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।  মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ (বিএসপিপি) আয়োজিত ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের’ প্রতিবাদে এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  বিএনপি মহাসচিব বলেন, আগামী নির্বাচনে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া তার দল বিএনপি এবং ২০ দলীয় জোট জাতীয়তাবাদী শক্তি যাতে অংশ নিতে না পারে সে জন্যই আজকে এই চক্রান্ত গুলো করা হচ্ছে। এই চক্রান্ত যদি আমরা প্রতিরোধ করতে না পারি ষড়যন্ত্র যদি আমরা বন্ধ করতে না পারি, তাহলে আমাদের দেশের অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে যাবে। ইতিমধ্যে দেশে গণতন্ত্র, অর্থনীতিকে ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে। তাই আর কালবিলম্ব না করে জাতি ধর্মবর্ণনির্বিশেষে সকল রাজনৈতিক দলকে ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।  ‘এই অবৈধ অনৈতিক সরকার তারা অত্যন্ত সুপরিকল্পনার মধ্য দিয়ে সুদূরপ্রসারী তাদের যে আকাঙ্ক্ষা সেটিকে বাস্তবায়িত করার লক্ষে তারা আজকে মহান নেত্রীকে রাজনীতি থেকে দূরে সরে দেবার জন্য গভীর চক্রান্ত করছে।   মির্জা ফখরুল বলেন, আজ প্রায় ১২ দিন হতে চলেছে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এখন সেই নাজিম উদ্দীন রোডের পরিত্যক্ত অন্ধকার কারাঘারের প্রকোষ্ঠে বন্দি হয়ে আছেন। আমাদের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যিনি নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্বাধীনতা স্বার্ভমৌত্বকে রক্ষার জন্য যিনি আজীবন লড়াই সংগ্রাম করেছেন সেই নেত্রীকে আজ কারারুদ্ধ করে রাখা হয়েছে।  তিনি বলেছেন, আমাদের সবসময় মনে রাখতে হবে আমরা একটি ফ্যাসিস্ট শক্তি একটা রাষ্ট্র স্বাধীনতা ধ্বংসকারী শক্তি, তার বিরুদ্ধে আমরা লড়াই করছি। এই লড়াইয়ে বেগম খালেদা জিয়া আমাদেরকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। সুতরাং তার মুক্তির জন্য আমাদের সবাইকে রাস্তায় নেমে আসতে হবে স্বোচ্ছার হতে হবে প্রতিবাদ করতে হবে এবং আন্দোলন এবং গণঅভ্যুত্থানের মধ্য দিয়েই তাকে কারাগার থেকে বের করে আনতে হবে।  বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ (বিএসপিপি)’র আহ্বায়ক ও দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদক প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমানের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ফরহাদ হালিম ডোনার, আব্দুল কুদ্দুস, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, শিক্ষক নেতা অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া, সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজী, সৈয়দ আবদাল আহমেদ, এম এ আজিজ, এম আব্দুল্লাহ, কাদের গনি চৌধুরী, ইলিয়াস খান, শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।