২ লাখ ইভিএম কেনার প্রকল্প আপাতত স্থগিত

15

বৈশ্বিক পরিস্থিতি আর আর্থিক সংকটের বিবেচনায় ২ লাখ ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) কেনার নতুন প্রকল্প আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত দিয়েছে সরকার।

নির্বাচন কমিশন সচিব জাহাঙ্গীর আলম সোমবার সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা সাংবদিকদের জানান।

এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এসে ইসি সচিব বলেন, “আমরা পরিকল্পনা কমিশন থেকে সিদ্বন্ত পেয়েছি। এ মুহূর্তে প্রকল্পটি তারা প্রক্রিয়াজাতকরণ করছে না। বাতিল হচ্ছে না, তবে এ মুহূর্তে হচ্ছে না।”

৮ হাজার ৭১১ কোটি ৪৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ২ লাখ ইভিএম ক্রয় ও ব্যবস্থাপনার জন্য গত বছরের অক্টোবরে এই প্রকল্প প্রস্তাব পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছিল নির্বাচন কমিশন।

প্রকল্পটি স্থগিত হয়ে যাওয়ায় সর্বোচ্চ দেড়শ আসনে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ইভিএমে ভোট করার পরিকল্পনাও হোঁচট খেল। তবে ইসির হাতে এই মুহূর্তে যে ইভিএম আছে, তা দিয়ে ৫০-৬০টি আসনে ইভিএমে ভোটগ্রহণের প্রস্তুতি চলবে বলে জাহাঙ্গীর আলমের ভাষ্য।

প্রকল্পটি স্থগিতের কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, “ইভিএম প্রকল্পটির বিস্তারিত পরীক্ষা নিরীক্ষা ও পর্যালোচনা করে এবং বর্তমান বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে সরকারের আর্থিক সামর্থ্য বিবেচনায় আপতত প্রক্রিয়াকরণ না করার জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।”

পরিকল্পনা কমিশন রোববার ইভিএম নিয়ে সরকারের এই সিদ্ধান্ত নির্বাচন কমিশনকে জানায়। সোমবার নির্বাচন কমিশন বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানালো।

ইসির সচিব বলেন, “২০১৮ সালের ইভিএম দিয়ে যা সম্ভব, তা ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত রয়েছে, তা বহাল রয়েছে। সেক্ষেত্রে ৫০-৬০ আসনে ইভিএমে ভোট হতে পারে।”