সিংগাইরে ঢাকার প্রবেশদ্বারে পুলিশের চেকপোস্ট জোরদার, সতর্ক অবস্থানে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা

268

মাসম বাদশাহ , সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশকে সামনে রেখে যে কোন ধরনের নাশকতা ঠেকাতে সমগ্র মানিকগঞ্জ তথা সিংগাইর থেকে ঢাকার প্রবেশে মুখে পুলিশের চেকপোস্টে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

এদিকে, ধল্লা চেকপোস্ট এলাকায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে অবস্থান নিয়েছেন আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সিংগাইর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদুর রহমান শহিদের নেতৃত্বে শতাধিক নেতাকর্মী অবস্থান নিয়েছেন। তারা বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে বিভিন্ন শ্লোগান দেন।

এর আগে ২৬ নভেম্বর দিবাগত রাত উপজেলার সিংগাইর বাসষ্ট্যান্ডের পশ্চিম পাশে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে নাশকতামূলক ভাবে ককটেল নিক্ষেপ করে সিএনজিতে আগুন ও ৩০ নভেম্বর রাতে গাজিন্দা গ্রামের জনৈক হানিফের ভিটা সংলগ্ন স্থানে পাকা রাস্তার ওপর ককটেল বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় দুষ্কৃতিকারীরা। পৃথক এ দুটি  ঘটনায় ৪০-৫০ জনকে আসামি করে সিংগাইর থানায় দুটি  মামলা হয়েছে। এতে কয়েকজন আসামিকে গ্রেফতারও করেছে পুলিশ।

সরেজমিন দেখা গেছে, বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই হেমায়েতপুর-সিংগাইর- মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের ধল্লা শহীদ রফিক সেতুর পশ্চিম পাশে পুলিশ চেকপোস্টে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে পুলিশ সদস্য সংখ্যাও। চেকপোস্ট অতিক্রম করার সময় রাজধানীমুখী বিভিন্ন যানবাহনের যাত্রীদের পড়তে হচ্ছে  জিজ্ঞাসাবাদের মুখে।

সিংগাইর থানার এস আই দীপংকর বলেন, ঢাকার প্রবেশ পথ সিংগাইরের ধল্লায় নিয়মিত তল্লাশি হয়ে থাকে। আমার ডিউটি পরেছে তাই ডিউটি করছি। সব গাড়িকে তল্লাশি করা হচ্ছে না। সন্দেহ হলেই তল্লাশি করছি।

তবে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান বলেন, কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচিকে সামনে রেখে চোকপোস্টের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়নি। ১ থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে পুলিশের বিশেষ অভিযান চলছে। পুলিশ হেডকোয়ার্টাসের নির্দেশনা অনুযায়ী জঙ্গি, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ ধরতে নিয়মিত অভিযান চালানো হচ্ছে। ধল্লাসহ জেলার আরও কয়েকটি স্থানে পুলিশের চেকপোস্ট রয়েছে বলে জানান তিনি।

আওয়ামীলীগের একাধিক নেতাকর্মী জানান , ঢাকায় ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশকে কেন্দ্র করে বিএনপি দেশব্যাপী নাশকতার পরিকল্পনা করছে। যেকোনো ধরনের নাশকতা পরিস্থিতি মোকাবিলায় কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা সর্তক অবস্থানে আছি। ধল্লা চেকপোস্ট এলাকায় ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত আমাদের এই অবস্থান চলবে।

এ ব‍্যাপারে সিংগাইর থানা ওসি সফিকুল ইসলাম মোল‍্যা বলেন, এসপি স্যার নিয়মিত সিংগাইর আসেন ৷ আজও এসেছিলেন। কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচিকে সামনে রেখে চোকপোস্টের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়নি। চেকপোস্টে নিয়মিত তল্লাসী হয়ে থাকে।