সামনে আরও কঠিন সময় আসবে, শক্ত থাকতে হবে : সেলিমা রহমান

27

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান বলেছেন, আমাদের সামনে আরও কঠিন সময় আসবে, সেই কঠিন সময়ে আমাদের শক্ত থাকতে হবে। বিএনপির পেছনে কোটি কোটি মানুষ দাঁড়িয়ে রয়েছে; তারা বিশ্বাস করে একমাত্র বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে পারবেন।

সোমবার (৯ জানুয়ারি) বিকেলে নয়াপল্টন ভাসানী ভবনে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। বিএনপি ঘোষিত আন্দোলনের ১০ দফা ও রাষ্ট্রকাঠামো মেরামতের ২৭ দফা রূপরেখা ব্যাখ্যা ও বিশ্লেষণ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করে ঢাকা জেলা বিএনপি।

সরকার বিএনপিকে কর্মসূচি পালনে বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করে সেলিমা রহমান বলেন, তারা বিএনপিকে এতটাই ভয় পাচ্ছে যে, কর্মসূচি পালন করলে জনগণ একতিত্র হয়ে যাবে। বাংলাদেশের কোটি কোটি জনগণ আজকে বিএনপির সাথে, তারা বিশ্বাস করছে বেগম খালেদা জিয়া যদি আরেকবার দেশে গণতন্ত্র ফিরেয়ে আনতে পারে তাদের অধিকার ফিরে পাবে। মানুষ বিশ্বাস করে বিএনপি সুদিন ফিরিয়ে দিতে পারে। দেশকে অন্ধকার গহ্বর থেকে আলোর পথে আনতে পারবে।

তিনি বলেন, বিএনপির প্রায় ৬ শতাধিক নেতাকর্মীকে গুম করেছে সরকার। গত কয়েক মাসে প্রায় ১০ হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারপরও বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করতে গেলে বাধা দিচ্ছে।

সেলিসা রহমান বলেন, গতকাল কুষ্টিয়ায় আমাদের একজন নেত্রী ফরিদা ছাত্রদল-যুবদলের নেতাকর্মী নিয়ে লিফলেট বিলি করেছিল। প্রশাসন কী পরিমাণে ভয় পেয়েছে যে, আজকে তার বাড়ি অবরুদ্ধ করে রেখেছে। যেন সে বের হতে না পারে, লিফলেট বিতরণ করতে না পারে।

তিনি বলেন, এখন আমাদের কাজ হবে, ১০ দফা ও রাষ্ট্রকাঠামো মেরামতের ২৭ দফা রূপরেখা মানুষের কাছে তুলে ধরা। বিশেষ করে শিক্ষিত সমাজ, প্রশাসন, সিভিল সোসাইটি, পেশাজীবী সমাজের কাছে প্রচার করতে হবে।

বিএনপির সামনে এখন একটাই লক্ষ্য খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা এবং দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে দেশে ফিরেয়ে নিয়ে আসা বলে উল্লেখ করেন বিএনপির এই নেত্রী বলেন, আমাদের গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করতে হবে। কোনোভাবে পিছিনে ফিরে যাওয়া যাবে না।

সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন ঢাকা জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ডা. দেওয়ান মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন, নাজিম উদ্দিন মাস্টার প্রমুখ।