সাভার পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা পাভেলকে কারাগারে

33

স্টাফ রিপোর্টার : সাভারে জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থা মার্কেটের ব্যবসায়ীকে মারধর, চাঁদাবাজি ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে একাধিক মামলার আসামি সাভার পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শীর্ষ সন্ত্রাসী পাভেলের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। তাকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শীর্ষ সন্ত্রাসী মোহাম্মদ পাভেল আহমেদসহ তার বাহিনীর ৫ জনের নামে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী মোঃ হাসানের চাচাতো ভাই মহব্বত আলী নামে এক ব্যক্তি থানায় চাঁদাবাজি, চুরি, মারধর ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলা (নং-৭৫) দায়ের করে।

ব্যবসায়ীকে মারধর ও হত্যাচেষ্টার মামলায় পাভেল বাহিনীর অন্য আসামীরা হলেন, সাভার পৌরসভার মজিদপুর এলাকার মৃত ছাদেক আলী ফরাজীর ছেলে আব্দুস সালাম ফরাজী (৫৫), একই এলাকার মৃত আফসার উদ্দিনের ছেলে আনোয়ার হোসাইন (৫৪), মৃত আমিন মিয়ার ছেলে বেলাল উদ্দিন ওরফে মনা (৪৬), শাহীবাগ এলাকার রুহুল আমিন মিস্ত্রির ছেলে মো: রিপন (৩২)। এছাড়াও মামলায় অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জনকে আসামী করা হয়েছে।

পাভেল ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙ্গিয়ে জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থা মার্কেটের দ্বিতীয় তলার ৩৮ নম্বর দোকান ভাড়া নিয়ে ভাড়া পরিশোধ না করে নিজের বলে দাবি করছেন। এমন অভিযোগ করেছেন জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থার মহাসচিব মো: আইয়ুব আলী হাওলাদার।

গ্রেফতারকৃত পাভেল (৩৮) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা থানার পুকুরপার গ্রামের হেফজু মিয়ার ছেলে। সে দীর্ঘদিন যাবত সাভার পৌরসভার শাহীবাগ এলাকায় থেকে সাভার প্রেসক্লাবে হামলা ও ভাঙচুর, একাধিক সাংবাদিককে হত্যা চেষ্টা, একাধিক ব্যবসায়ীকে হত্যা চেষ্টা, প্রকাশ্যে মাদক সিন্ডিকেট পরিচালনা, ফ্ল্যাট দখল, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দখল, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছিল। এসব ঘটনায় তার বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় একাধিক অভিযোগ ও মামলা রয়েছে।

এর আগে রবিবার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে মারধর ও হত্যাচেষ্টার করা হয় জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থা মার্কেটের ব্যবসায়ী পাবনা জেলার ইসলামপুর গ্রামের মোখলেজ উদ্দিনের ছেলে ও সাভার পৌরসভার মজিদপুর এলাকার বাসিন্দা মোহাম্মদ হাসানকে। পরে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে চাচাতো ভাই মহব্বত আলী সাভার মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থা মার্কেটের ব্যবসায়ী মোহাম্মদ হাসানের কাছে গত কয়েকদিন যাবত এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল মোহাম্মদ পাভেল আহমেদ। তা না হলে সাভারে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবে না বলেও ওই ব্যবসায়ীকে হুমকি দেওয়া হয়। এর ঠিক ৩ ঘণ্টা পর আবারো লোকজনসহ তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ওই মার্কেটের তিনতলায় পাভেল বাহিনীর দখলকৃত অফিসে হাসানকে বেধড়ক মারধর ও হত্যা চেষ্টা চালায়। অন্য ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে খবর পেয়ে মার্কেটের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হলে তাদের ধরে এলোপাথাড়ি কিল ঘুষি মারতে থাকেন সন্ত্রাসী পাভেল আহমেদ ও তার বাহিনীর লোকজন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা, পিপিএম জানান, ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীর ঘটনায় পাভেল আহমেদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। সেই মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।