সাভারে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার হামলায় প্রতিবেশির মৃত্যু

103

 

স্টাফ রিপোর্টোর : সাভারে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার হামলায় আহত  হোসেন আলী (৪০) সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। তিনি ওষুধ ব্যসায়ী ছিলেন।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) ভোরে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরো-আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

সকাল ১০টার দিকে তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের ডিউটি ম্যানেজার ইউসুফ আলী। নিহত হোসেন আলী সাভারের রাজফুলবাড়িয়ার রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত শফিতুল্লার ছেলে।

হামলায় অভিযুক্তরা হলেন- ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সাফু, তার সহযোগী আনোয়ার হোসেন, মো. আব্বাস বাদল,  কামরুল, নাঈম, আনিস ও মুন্নাসহ অজ্ঞাত ১০-১২ জন। তারা সবাই রাজফুলবাড়িয়া এলাকার বাসিন্দা।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, জমি সংক্রান্ত বিষয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শফিকুল ইসলাম সাফু ও নিহতের পরিবারের মধ্যে বিরোধ ছিল। এর জেরে গত ২৬ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০টার দিকে হোসেন ও তার ভাই খোরশেদ রিকশায় করে বাড়িতে ফেরার সময় রামচন্দ্রপুর এলাকায় পৌঁছলে অভিযুক্তরা তাদের গতিরোধ করে দেশীয় অস্ত্র ছুরি, রাম দা দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করে পালিয়ে যায়। এসময় হোসেন আলী জ্ঞান হারিয়ে ফেললে আশপাশের লোকজন তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে হোসেন আলীকে এনাম মেডিকেলের নিউরো আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

অভিযোগের বিষয়ে ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সাফু বলেন, হোসেনের চাচাতো ভাইদের সঙ্গে আমার জমি সংক্রান্ত বিরোধ ছিল। কিন্তু তার (হোসেন) সঙ্গে কোনো বিরোধ নেই। আর হোসেনের সঙ্গে তো অনেক লোকের ঝামেলা রয়েছে। কে বা কারা তাদের মেরেছে এব্যাপারে তো আমি জানি না। তারা অযথা দোষারোপ করছেন।

সাভার মডেল থানার ট্যানারি ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক এসআই আব্দুল জলিল বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।