সাভারে এমএলএম ব্যবসার নামে দেড় কোটি টাকা আত্মসাৎ, মার্কেট মালিক মোশাররফসহ গ্রেফতার ২

49
স্টাফ রিপোর্টার : সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ডের ভরসার মার্কেটে তৃতীয় তলায় এমএলএম অফিস খুলে অল্প বয়সী যুবক ও যুবতীদের চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারনা করে দেড় কোটি টাকা হাতিয়ে নেওযার অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় সাভার মডেল থানার পুলিশ রাজাসন রোডের ভরসার সুপার মার্কেটের মালিক ও বিএনপির সাংস্কৃতিক সংগঠন জাসাস এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লায়ন মোশাররফ হোসেন শিপার ও তার এমএলএম ব্যবসায়ী সহযোগী নয়নকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
এর আগে গত দুই দিন যাবৎ চাকরি প্রত্যাশী যুবক-যুবতীরা অফিস ও মোশারফের বাসার সামনে অবস্থান করে বিক্ষোভ করে। একই সাথে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া সকলে তাদের চাকরি দেওয়া কথা বলে নেওয়া অর্থ ফেরত দাবি করে। পরে বৃহস্পতিবার রাতে সাভার মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অবরুদ্ধ নয়ন ও মোশাররফ হোসেন শিপারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।
 এঘটনায় ভুক্তভোগীদের মধ্যে একজন বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায়  প্রতারনা ও অর্থ আত্মসাৎয়ের অভিযোগ এনে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করে। এদিকে গ্রেফতার এড়াতে পলাতক রয়েছে সৌরভ নামে একজন।
ভুক্তভোগী আকাশ, চন্দন, কাওছার আহম্মেদ জানান, আমাদেরকে বিভিন্ন জেলা থেকে এখানে এনে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতিজন থেকে ৪০/৫০ হাজার করে টাকা নিয়েছে তারা। ৩/৪ টি ব্যাচে ছেলে ও মেয়ে মিলে প্রায় ২০০ জনের কাছ থেকে এই টাকা হাতিয়ে নেয়। এর আগে একটি ব্যাচের ৭০ জনের টাকা ফেরত দেওয়ার কথা থাকলেও মার্কেট মালিক মোশাররফ হোসেন টাকা ফেরত দেননি। সব মিলিয়ে তারা একটি প্রতারনার ফাঁদ খুলে বসেছে, আমরা এই প্রতারকদের সুষ্ঠু বিচার ও টাকা ফেরত চাই।
এ ব্যাপারে মডেল থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ঘটনাস্থল থেকে দু’জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ভুক্তভোগীদের পক্ষে একজন বাদী হয়ে মামলা দায়েরের পর আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় তদন্ত ও পলাতক আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।