সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্রের মৃত্যু, আহত একই পরিবারের ৭

21

টাঙ্গাইল সংবাদদাতা : টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মারুফ হোসেন নামে নবম শ্রেণির এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছেন। একই ঘটনায় বাবা-মাসহ একই পরিবারের সাত জন আহত হয়েছেন।

সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের ধেরুয়া এলাকায় একটি মাইক্রোবাস রাস্তার পাশে আইল্যান্ডের সঙ্গে ধাক্কা লেগে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের চিকিৎসার জন্য কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহত মারুফ গাইবান্ধা সদরের চাপাদহ গ্রামের এনামুল হকের ছেলে। সে গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র।

আহতরা হলেন- নিহত মারুফের বাবা (চালক) এনামুল হক, মা, চাচা আনোয়ারুল ইসলাম, চাচী নার্গিস রুকসানা, চাচাতো বোন বিন্তী, ছোট বোন ইথিনা আক্তার মিম ও তিন মাসের শিশু মরিয়ম। এদের মধ্যে ইথিনা আক্তার মিমের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

মির্জাপুরের গোড়াই হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা টুটুল জানান, গাইবান্ধা সদরের চাপাদহ গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য এনামুল হক তার ভাই আনোয়ারুল ইসলামের চিকিৎসার জন্য পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। পথে মহাসড়কের ওই স্থানে পৌঁছালে তাদের বহন করা মাইক্রোবাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে আইল্যান্ডের সঙ্গে ধাক্কা লাগে।

এ সময় মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে চালকসহ আট জন আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কুমুদিনী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মারুফকে মৃত ঘোষণা করেন। তার মরদেহ হাসপাতালে রয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।