যানবাহনে তল্লাশি জোরদার, বাদ যাচ্ছে না বরযাত্রীবাহী গাড়িও

60

রাজধানী ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে গাজীপুরে শুক্রবার বিকেল থেকে পুলিশের তল্লাশি জোরদার করা হয়েছে। এ তল্লাশি থেকে বাদ যাচ্ছে না বরযাত্রীবাহী গাড়িও। যানবাহনে ব্যাপক তল্লাশির কারণে জনমনে কিছুটা আতঙ্কও তৈরি হয়েছে। ফলে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঢাকার দিকে যাচ্ছেন না। তবে যারা জরুরি প্রয়োজনে ঢাকায় যাচ্ছেন তারা পড়ছেন পুলিশের তল্লাশিতে। এসব কারণে সড়কে যানবাহন ও যাত্রীর সংখ্যা অনেকটাই কম।

একটু পরপর তল্লাশির মুখে পড়তে হচ্ছে গণপরিবহনকে। এতে বাদ পড়ছে না বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসও। শুক্রবার দুপুরে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই এলাকা থেকে একটি মাইক্রোবাস বরসহ সাত-আটজন যাত্রী নিয়ে গাজীপুরের দিকে যাচ্ছিল। মাইক্রোবাসটি গাজীপুর উপজেলার চন্দ্রা ফায়ার সার্ভিসের কাছাকাছি পৌঁছালে হাইওয়ে পুলিশ গতি রোধ করে। গাড়ির সামনে বড় করে শুভ বিবাহ লেখা থাকলেও পুলিশ সদস্যরা মাইক্রোবাসটি তল্লাশি করেন। তল্লাশির পর মাইক্রোবাসটি ছেড়ে দেন তারা।

মাইক্রোবাসের চালক বলেন, বরযাত্রীদের নিয়ে বের হয়ে গোড়াই এলাকায় এলে গাড়ি একবার তল্লাশি করা হয়। আবার চন্দ্রায় এসেও পুলিশি তল্লাশির মুখে পড়তে হলো।

এ বিষয়ে কোনাবাড়ী হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা যানবাহন তল্লাশি করছি। তবে কেউ যাতে অযথা হয়রানির শিকার না হয়, সে দিকেও খেয়াল রাখছি। বরযাত্রী বেশে কোনো দুষ্কৃতকারী যাতে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে না পারে, তাই সব যানবাহনে তল্লাশি করা হচ্ছে।

এদিকে, গাজীপুর দিয়ে ঢাকায় প্রবেশের সবগুলো প্রবেশমুখে শুক্রবার বিকেল থেকে তল্লাশি জোরদার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে রয়েছে গাজীপুরের মিরের বাজার, শ্রীপুরের জৈনা বাজার, টঙ্গী ব্রিজের উভয় প্রান্ত।

টাঙ্গাইল থেকে অসুস্থ নাতিকে দেখতে ঢাকায় যাচ্ছিলেন লিয়াকত হোসেন। তিনি বলেন, দুপুরের পর টাঙ্গাইল থেকে আসার পথে চার জায়গায় তল্লাশির মুখে পড়তে হয়েছে। দুই জায়গায় আমার ব্যক্তিগত মোবাইল ঘাটাঘাটি করেছে পুলিশ। তল্লাশির কারণে যাতায়াতে সময়ও বেশি লাগছে। দুই ঘণ্টার রাস্তা তল্লাশির মুখে পড়ে চার ঘণ্টা লেগেছে।

এ বিষয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, কেউ যেন নাশকতার উদ্দেশ্যে কোনোকিছু বহন করতে না পারে, এজন্য গাড়িতে তল্লাশি করা হচ্ছে। জনগণের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সব ধরনের পদক্ষেপ নেবে।