ধামরাইয়ে শিকলে দুই পা বাধা অজ্ঞাত নারীর ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার

41

ধামরাই প্রতিনিধি : ধামরাইয়ে শিকল দিয়ে দুই পা বাধা অজ্ঞাত এক নারীর (৪০) ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক সংলগ্ন কেলিয়া এলাকার এএনসি কারখানার কাছ থেকে লাশটি উদ্ধার করে ধামরাই থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, কেলিয়া এলাকার এএনসি কারখানার সামনে দুই পা শিকল দিয়ে বাধা অবস্থায় অজ্ঞাত এক নারীর ক্ষতবিক্ষত লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন।

খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে ধামরাই থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। তার পরনে থ্রি-পিচ ও সোয়েটার ছিল। মাথায় ও পায়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পায়ে বাধা শিকলে তালা লাগানো ও মাথার চুল মেহেদী দিয়ে রং করা ছিল।

ধামরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) নির্মল কুমার দাস জানান, হয়ত মানসিক রোগী (পাগলী) হওয়াতে স্বজনরা শিকল দিয়ে বেধে রেখেছিল। সেখান থেকে ছুটে এসে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যেতে পারে। তবে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে বিষয়টি ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পরই জানা যাবে।

এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। এছাড়া নিহত নারীর পরিচয় উদ্ঘাটনের পিবিআই ও সিআইডি ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে লাশ সনাক্তের চেষ্টা চলছে।

তবে প্রশ্ন থেকে যায়, যদি মানসিক রোগীই হয় তাহলে তাঁর দুই পায়ে শিকলে তালা দিয়ে বাধা এবং চুলে মেহেদী রং থাকবে কেন?

এদিকে গত এক সপ্তাহেও অজ্ঞাত ব্যক্তির গলাকাটা লাশের পরিচয় ও হত্যাকারীদের সনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। লাশটি গত বুধবার কুল্লা ইউনিয়নের বাড়িগাওয়ের একটি বিল থেকে উদ্ধার করা হয়।