বিএনপির বিজয় শোভাযাত্রা, নয়াপল্টন লোকে লোকারণ্য

34

সরেজমিনে দেখা যায়, বিজয় শোভাযাত্রায় অংশ নিতে আসা নেতা–কর্মীরা কাকরাইলের নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে ফকিরাপুল মোড়ে প্রায় ৮০০ মিটার সড়কের দুই পাশেই অবস্থান নিয়েছেন। এই অংশের দুই পাশের সড়ক লোকে লোকারণ্য হয়ে গেছে। শোভাযাত্রায় আসা নেতা–কর্মীরা রং-বেরঙের পোশাক পরে এসেছেন। কেউ আবার একই রঙের ক্যাপ (টুপি) মাথায় দিয়ে এই কর্মসূচিতে এসেছেন।

জাতীয় পতাকার সঙ্গে মিলিয়ে পাঞ্জাবি, শাড়ি ও ক্যাপ পরে এসেছেন কেউ কেউ। এই শোভাযাত্রায় সাংস্কৃতিক অঙ্গনের লোকজনকে নিয়ে গঠিত জাসাসের নেতা–কর্মীরা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে স্মরণ করে তাঁর মতো পোশাক পরে এসেছেন। ‌একটি কৃত্রিম কামান তাঁরা তৈরি করে নিয়ে এসেছেন।

বিজয় শোভাযাত্রায় আসা নেতা–কর্মীরা ‘বিজয়ের এই দিনে, জিয়া তোমায় মনে পড়ে,
স্বৈরাচারের গদিতে আগুন জ্বালো একসাথে, মুক্তি মুক্তি মুক্তি চাই, খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ ইত্যাদি স্লোগান দিচ্ছেন।

শোভাযাত্রায় অংশ নিতে দলীয় কার্যালয়ের সামনে আসছেন বিএনপির নেতা-কর্মীরা

শোভাযাত্রা শুরুর আগে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে দলের শীর্ষ নেতারা বক্তব্য দেবেন। এ জন্য নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে একটি পিকআপে অস্থায়ী মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। মঞ্চ থেকে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদস্যসচিব আমিনুল হক শোভাযাত্রায় আসা নেতা–কর্মীদের উদ্দেশে ঘোষণা দিয়েছেন, নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে শোভাযাত্রা শুরু হবে।‌ কাকরাইল, শান্তিনগর, এরপর মালিবাগ চৌরাস্তা হয়ে ফকিরাপুল মোড় ঘুরে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এসে কর্মসূচি শেষ হবে।

এই কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন। ইতিমধ্যে অস্থায়ী মঞ্চে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান, দলের ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ, আহমদ আজম খান ও ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমানসহ অনেক নেতা–কর্মী উপস্থিত হয়েছেন।