প্রাথমিকে শীতকালীন ছুটি বাতিল

44

দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বৃত্তি পরীক্ষা ও পয়লা জানুয়ারি বই উৎসবের কারণে শীতকালীন ছুটি বাতিল করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। তবে আগের ঘোষণা অনুযায়ী বড় দিনের ছুটি বহাল থাকবে।

আজ রোববার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক মনীষ চাকমা সই করা অফিস আদেশ থেকে এ তথ্য জানা যায়।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২০২২ সালের ছুটির ক্যালেন্ডারে সাত দিন শীতকালীন অবকাশের কথা উল্লেখ ছিল। তবে হঠাৎ করেই চলতি বছর পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রাথমিকে বৃত্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ ডিসেম্বর। উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হবে এ পরীক্ষা। মোট চার বিষয়ে এ পরীক্ষা হবে। বিষয়গুলো হলো-বাংলা, প্রাথমিক গণিত, ইংরেজি ও প্রাথমিক বিজ্ঞান। প্রতিটি বিষয়ের জন্য ২৫ নম্বর বরাদ্দ থাকবে।

অফিস আদেশে বলা হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২০২২ সালের ছুটি অনুযায়ী ছুটির তালিকায় যিশুখ্রিষ্টের জন্মদিন বা বড় দিন ও শীতকালীন অবকাশের জন্য ২২ ডিসেম্বর থেকে ২৮ ডিসেম্বর সাত দিন পর্যন্ত ছুটির উল্লেখ রয়েছে। তবে, আগামী ৩০ ডিসেম্বর প্রাথমিক স্তরের বৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রাথমিক স্তরের বৃত্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি, ডিআর ও ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের বই বিতরণ কার্যক্রম, বই বিতরণ উৎসবের প্রস্তুতি এবং ২০২১ শিক্ষা বর্ষের তৃতীয় প্রান্তিকের মূল্যায়ন ও ফলাফল প্রকাশ-এর জন্য শীতকালীন অবকাশ সংক্রান্ত ছুটি বাতিল করা হলো। শুধুমাত্র ২৫ ডিসেম্বর যিশুখ্রিষ্টের জন্মদিনে ছুটি বহাল থাকবে।

বর্তমানে সারা দেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আছে ৬৫ হাজার ৬২০ টি। এসব বিদ্যালয়ে শিক্ষক আছেন ৩ লাখ ৫৯ হাজার ৯৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ শিক্ষক ১ লাখ ২৬ হাজার ৪৩০ এবং নারী শিক্ষক ২ লাখ ২৯ হাজার ৯৩৬ জন। আর শিক্ষার্থী সংখ্যা ১ কোটি ৪১ লাখ ৪৪৫ জন।