ধামরাইয়ে ঘন কুয়াশায় শ্রমিকবাহী বাস উল্টে খাদে, নিহত ২, আহত ৩০

49

ধামরাই প্রতিনিধি : ঘণ কুয়ার কারণে ঢাকার ধামরাইয়ে প্রতীক সিরামিকস কারখানার পলাশ পরিবহনের শ্রমিকবাহী একটি বাস উল্টে খাদে পড়ে দুই নারী শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরও ৩০ জন। শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ধামরাই-সাটুরিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের খাগুরতা বাসস্ট্যান্ডের পশ্চিম পাশে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- ওই কারখানার শ্রমিক ধামরাইয়ের মধুডাঙ্গা আব্দুল বাছের আলীর মেয়ে আকলিমা আক্তার (২৬) ও আমির হোসেনের মেয়ে সুরাইয়া বেগম (৩০)। এ ঘটনায় গুরুতর আহত ৬ জনকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিত বাসের চালক সাভারের বনগাওয়ের কামাল উদ্দিনের ছেলে রজ্জব আলীকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ধামরাইয়ের ডাউটিয়া প্রতীক সিরামিকসের শ্রমিকবাহী একটি বাস ভোর ৫টার দিকে ধামরাইয়ের বালিয়া বাসস্ট্যান্ড থেকে ৩৫-৪০ জন শ্রমিক নিয়ে কারখানার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। বাসটি ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ধামরাই-সাটুরিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের খাগুরতা বাসস্ট্যান্ডের পশ্চিম পাশে পৌছলে ঘন কুয়ার কারণে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের উত্তর পাশের খাদে উল্টে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই আকলিমা আক্তার ও সুরাইয়া বেগম নামে দুই নারী শ্রমিক নিহত ও ৩০ জন আহত হন।
ধামরাই ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার সোহেল রানা বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে কালামপুর ও সাভারের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করেছি। আহতদের মধ্যে দুইজন নারী শ্রমিক মারা গেছেন। বেশ কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।
প্রতীক সিরামিকস কারখানার ম্যানেজার আক্রাম হোসেন দুই নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গুরুতর আহত ৬ জনকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে কি ভাবে দুর্ঘটনা ঘটেছে তা বিস্তারিত জানতে পারিনি।
ধামরাই থানার ওসি আতিকুর রহমান বলেন, নিহত দুই নারী শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করে থানা আনা হয়েছে। এছাড়া দুর্ঘটনা কবলিত বাসের চালককে আটক করা হয়েছে।