ধানমন্ডিতে নিহত দুই বন্ধু যাচ্ছিলেন আর্জেন্টিনার খেলা দেখতে

47

রাজধানী ধানমন্ডির ৩২ নম্বরের রাসেল স্কয়ারের সামনে বেপরোয়া কাভার্ডভ্যানচাপায় রিকশার দুই আরোহী নিহতের ঘটনায় মামলা হলেও এখনো গ্রেফতার হয়নি। নিহত দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন রিকশার যাত্রী মো. জাকির হোসেন (৩৫) ও জন বিশ্বাস (৩৮)।

নিহত জাকিরের মামা আবদুর রহিম জানান, রাতে বিশ্বকাপ খেলা দেখার জন্য বন্ধুর সঙ্গে রিকশায় করে টিএসসিতে যাচ্ছিল জাকির। পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) কলাবাগান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় কলাবাগান থানায় সড়ক পরিবহন আইনে মামলা হয়েছে। মামলার বাদী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিনহাজ। মামলায় আসামি করা হয়েছে কাভার্ডভ্যানচালক ও সহকারীকে। কাভার্ডভ্যানটি জব্দ করা হয়েছে। তবে তাদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। দুর্ঘটনার আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে চালক-সহকারীকে গ্রেফতারে অভিযান চলমান। এছাড়া ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গ থেকে মরদেহ নিহতের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

নিহত জাকিরের মামা মো. আবদুর রহিম বলেন, জাকির সাকসেস ডেন্টাল ল্যাবের টেকনিশিয়ান ছিল। রাতে বিশ্বকাপ খেলা দেখার জন্য দুই বন্ধু টিএসসিতে যাচ্ছিল। পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে এসে মরদেহ দুটি শনাক্ত করি।

jagonews24

তিনি জানান, জাকিরের বাড়ি দিনাজপুরের খানসামা থানার গোয়ালডিহি গ্রামে। বর্তমানে সে রাজধানীর আদাবর এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকত।

নিহত জন বিশ্বাসের ফুফাতো ভাই রাজু জানান, জনও সাকসেস ডেন্টাল ল্যাবের ল্যাবরেটরির টেকনিশিয়ান ছিলেন। খুলনা জেলার দাকোপ থানার লাউডোব গ্রামে তার বাড়ি। তারা দুই বন্ধু একসঙ্গে আদাবরে ভাড়া বাসায় থাকতেন।

কলাবাগান থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিনহাজ উদ্দিন জানান, মঙ্গলবার রাতে রাসেল স্কয়ার মোড় এলাকায় রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের পড়ে থাকতে দেখে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। জানা গেছে, রিকশাযোগে খেলা দেখতে যাওয়ার পথে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় দুজন গুরুতর আহত হন। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় রিকশাচালকসহ আরও একজন আহত হয়েছেন।