দিল্লিতে তীব্র শীতে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা

43

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে তীব্র শৈত্যপ্রবাহের কারণে সব সরকারি-বেসরকারি স্কুল ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে প্রদেশটির শিক্ষা বিভাগ। দিল্লির কিছু স্কুল ৮ জানুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ ছিল এবং ৯ জানুয়ারি থেকে খোলার কথা ছিল। তবে এই আদেশের পর এখন স্কুল ছুটি আরও সাত দিন বাড়ানো হয়েছে। অন্যদিকে দিল্লির সরকারি স্কুলগুলো ১ জানুয়ারি থেকে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ রয়েছে।

গতকাল রোববার দিল্লিতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এটি গত দশ বছরে দিল্লির দ্বিতীয় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। এরপরই আসে এ ঘোষণা।

বর্তমানে পুরো উত্তর ভারতে শীতল বাতাসের প্রভাব রয়েছে। দিল্লিতেও শীতের প্রকোপ চলছে। পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, উত্তর রাজস্থান, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম, আসাম, ত্রিপুরা, মধ্যপ্রদেশে কুয়াশা দুই থেকে তিন দিন ধরে জেঁকে বসেছে। যার কারণে ভারতের আবহাওয়া দপ্তর একাধিক সতর্কবার্তা জারি করেছে। রাজ্যগুলোর জন্য জারি করা হয়েছে লাল ও কমলা সতর্কতা।

দিল্লিতে প্রতিদিনই শীতের রেকর্ড ভাঙছে। রোববার ছিল মৌসুমের শীতলতম দিন। সফদরজংয়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১.৯ ডিগ্রি। গত তিন দিন ধরে দিল্লির সর্বনিম্ন তাপমাত্রা হিলি স্টেশনের চেয়ে কম রেকর্ড করা হয়েছে। শনিবার দিল্লিসহ পুরো উত্তর ভারতে শৈত্যপ্রবাহের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয় এবং দিল্লির অনেক জায়গায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়।

সফদারজং অবজারভেটরি, দিল্লির প্রাথমিক আবহাওয়া কেন্দ্র, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করেছে, যা হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডের বেশিরভাগ জায়গা এবং জম্মু ও কাশ্মিরের কিছু পর্যটন স্থানের চেয়ে কম। শৈত্যপ্রবাহের কারণে মধ্য দিল্লির রিজ আবহাওয়া কেন্দ্রে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমেছে।