তারেক ও জোবায়দার সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের নির্দেশ

26

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক মামলার ভিত্তিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী জোবায়দা রহমানের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

একইসাথে ক্যান্টনমেন্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) ১৯ জানুয়ারির মধ্যে সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ মো: আছাদুজ্জামানের আদালত এ আদেশ দেন। দুদকের কোর্ট পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আমিনুল ইসলাম বলেন, গ্রেফতারি পরোয়ানার তামিল প্রতিবেদন গ্রহণ করেন আদালত। এরপর ক্যান্টনমেন্ট থানার ওসিকে ১৯ জানুয়ারির মধ্যে সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়।

গত বছর ১ নভেম্বর একই আদালত তারেক-জোবায়দার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, জ্ঞাত আয়ের বাইরে চার কোটি ৮১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৬১ টাকার মালিক হওয়া ও সম্পদের তথ্য গোপন করার অভিযোগে ২০০৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর কাফরুল থানায় তারেক-জোবায়দাসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়। এরপর ২০০৮ সালে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। কিন্তু হাইকোর্টের নির্দেশে দীর্ঘ ১৪ বছর মামলাটির বিচারকাজ স্থগিত থাকে। এরপর স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হলে গত বছরের এপ্রিলে আবার শুরু হয় বিচারকাজ।

বর্তমানে তারেক রহমান ও তার স্ত্রী জোবায়দা রহমান লন্ডনে অবস্থান করছেন। আইনের দৃষ্টিতে তারা পলাতক।