জাজিরায় ট্রাকের নিচে ঢুকে গেল অ্যাম্বুলেন্স, রোগীসহ নিহত ৬

27

শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবায় সড়ক দুর্ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্সের ছয় আরোহী নিহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ঢাকা-ভাঙ্গা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন—জাহানারা বেগম (৫৫), লুৎফুন নাহার লিমা (২৮), ফজলে রাব্বি (২৮), রবিউল ইসলাম (২৬), জিলানি (২৮) ও মাসুদ রানা (৩০)।

পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুরজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘অ্যাম্বুলেন্সটি বরিশাল কলেজ রোড থেকে ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। ট্রাকটিও ঢাকার দিকেই যাচ্ছিল। অ্যাম্বুলেন্সটি পেছন থেকে সিলিন্ডার বোঝাই ট্রাককে ধাক্কা দিয়ে নিচে ঢুকে যায়। এ সময় অ্যাম্বুলেন্সে থাকা ছয় আরোহীর সবাই নিহত হন।’ অ্যাম্বুলেন্সটি ট্রাকের দুই হাত ভেতরে ঢুকে যায় বলে জানান তিনি।

ঘটনাস্থলেই অ্যাম্বুলেন্সের ছয় আরোহী নিহত হনসুরজ উদ্দিন আহমেদ জানান, নিহতদের মধ্যে চার অ্যাম্বুলেন্স যাত্রী, চালক ও হেলপার ছিলেন। যাত্রী চারজনের মধ্যে যিনি রোগী ছিলেন, তাঁর নাম জাহানারা বেগম (৫৫)। বাকি তিনজন হলেন ওই রোগীর ছেলে ও মেয়ে। অন্য একজন তাঁর আত্মীয়।

ঘন কুয়াশার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান।

দুর্ঘটনা কবলিত অ্যাম্বুলেন্সজাজিরা উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার এনামুল হক সুমন বলেন, ‘দুর্ঘটনার খবর শুনে আমরা ভোর ৪টা ২০ মিনিটে ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। অ্যাম্বুলেন্সটি ট্রাকের পেছনে ধাক্কা দেয়। অ্যাম্বুলেন্সটি ট্রাকের ভেতরে ঢুকে দুমড়ে-মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে অ্যাম্বুলেন্সের চালকসহ ছয় আরোহীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আমরা জানতে পেরেছি, তাঁদের গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফল এলাকায়। তবে রোগী ও তাঁদের স্বজনেরা বরিশাল থেকে ঢাকার দিকে যাচ্ছিলেন।