ইউক্রেনকে দ্বিতীয় বৃহত্তম প্যাকেজ সহায়তার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

20

রাশিয়ার বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধে ইউক্রেনকে নিরাপত্তা সহায়তার প্যাকেজ দিচ্ছে মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগন। নতুন সহায়তা হিসেবে আড়াইশ কোটি মার্কিন ডলারের প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে।

খবর সিএনএন’র।

 

নতুন এ সহায়তা প্যাকেজে আছে স্ট্রাইকার সাঁজোয়া যানসহ অত্যাধুনিক অস্ত্র। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ভারী ট্যাংক চেয়েছিলেন। কিন্তু এ প্যাকেজে সেটি নেই।

খবরে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) প্যাকেজটি ঘোষণা করে পেন্টাগন। এখন পর্যন্ত যতগুলো প্যাকেজ ইউক্রেনকে সহায়তা হিসেবে দেওয়া হচ্ছে, এটি তার মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম।

প্যাকেজের আওতায় রয়েছে ৯০টি স্ট্রাইকার, ৫৯টি ব্যাডলি ফাইটিং কার। চলতি মাসে আরও শতাধিক সামরিক যান দেবে পেন্টাগন।

সমরাস্ত্র হিসেবে এ প্যাকেজে আরও থাকছে হিমার্স রকেট সিস্টেম ও প্রচুর গোলাবারুদ, হাই মোবিলিটি আর্টিলারি রকেট সিস্টেম (হিমার্স), মাঝারি পাল্লার মাল্টিপল লঞ্চ রকেট সিস্টেম (এমআলআরএস)।

ইউক্রেনকে এখন পর্যন্ত বেশ কয়েকটি হিমার্স দিয়েছে জো বাইডেন প্রশাসন। যেগুলো দিয়ে ইউক্রেনীয় সেনারা রুশ বাহিনীর অস্ত্রের ডিপো ও কমান্ড পোস্টে হামলা চালাতে পেরেছে। এমআলআরএস দিয়ে নির্ভুলভাবে একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করা যায়। ইউক্রেনকে নিজেদের আকাশ প্রতিরক্ষার জন্য অতিরিক্ত অস্ত্র দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে পেন্টাগন।

ইউক্রেনকে ধারাবাহিকভাবে অস্ত্র সহায়তায় দেওয়ায় ক্ষোভ দেখিয়েছে রাশিয়া। ক্রেমলিন বলছে, যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা মিত্ররা যা শুরু করেছে, তাতে যুদ্ধ আরও ত্বরান্বিত হবে। এ ছাড়া রুশ প্রধান ভ্লাদিমির পুতিনও বিভিন্ন সময় হুমকিমূলক কথাবার্তা বলেছেন। পশ্চিমাদের অস্ত্র ও সামরিক যান রুশ সেনাদের বৈধ লক্ষ্যবস্তু হবে বলেও তিনি সতর্ক করেছেন। কিন্তু তাকে পাত্তা দিচ্ছে না ন্যাটোভুক্ত দেশগুলো।