আশুলিয়ায় ফুটপাতে বেড়েছে শীতের পোশাক বিক্রি

48

শাহাদাৎ হোসেন, আশুলিয়া প্রতিনিধি : সারাদেশে বইছে শৈত প্রবাহ। আর শীতের এই প্রকোপ বাড়ার সাথে সাথে শিল্পাঞ্চল আশুলিয়ায় ফুটপাতে বেড়েছে শীতের পোশাক বিক্রি। গরম পোশাক কিনতে একরকম হিড়িক পড়ে গেছে ফুটপাতে।

আশুলিয়ার শ্রীপুর, বলিভদ্র বাজার, জিরানী বাজার, জমগড়া ও বগাবাড়ি বাজারে মহাসড়কের পাশের ফুটপাতে শীতের পোশাক বিক্রি করা হচ্ছে।

শীতের পোশাক বিক্রি করা একাধিক ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা যায়, শিশু ও বয়স্কদের শীতের কাপড় বেশি বিক্রি হচ্ছে। শীতের কাপড়ের মধ্যে পায়ের মোজা, হাত মোজা, মাফলার, সুয়েটার, হুডি, মাথার টুপি, ফুলহাতা গরম কাপড়ের গেঞ্জি বিক্রি হচ্ছে বেশি। বিক্রেতারা দাম সহনীয় রয়েছে বললেও ক্রেতারা বলছেন দাম একটু বেশি।

তারা বলছেন, শীতের শুরুতে কেনা পোশাক এখন কাজে লাগছে না। তীব্র শীতে তাই তারা এখানে এসেছেন শীতের কাপড় কিনতে। তবে বিভিন্ন শপিং মলের থেকে ফুটপাতে কাপড়ের দাম তুলনামূলকভাবে কম থাকে। তাই এখানেই ছুটে এসেছেন। তবে ক্রেতাদের এই সময়ে গরম কাপড়ের চাহিদা বেশি থাকায় বিক্রেতারা দাম হাঁকাচ্ছেন কয়েকগুণ বেশি।

গত কয়েকদিন ধরেই দেশে শৈত প্রবাহ থাকার সুযোগে হকাররাও শীতের পোশাকের দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন দ্বিগুণ। দুই সপ্তাহ আগেও যে পোশাক ২০০ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে, তা এখন কমপক্ষে ৩/৪’শ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

শ্রীপুর ফুটপাতে শীতের কাপড় বিক্রি করেন রফিকুল। তিনি জানান, শীত বাড়ার সাথে সাথে বাচ্চাদের গরম কাপড় বিক্রি বেড়ে গেছে। সেই সাথে বয়স্কদের জন্য কিনে নিচ্ছেন ক্রেতারা। তার প্রতিদিন ৪/৫ হাজার টাকার মত কাপড় বিক্রি হয়ে থাকে।

আরেক ফুটপাত ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম জানান, শীতের প্রকোপ বাড়ার সাথে সাথেই গরম কাপড়ের চাহিদা বেড়ে গেছে। সব বয়সের মানুষের জন্যই কাপড় কিনছেন ক্রেতারা।

শীতের জামা কিনতে আসা মনির হোসেন নামের এক যুবক জানান, তিনি শীতের শুরুতে কয়েকটা পাতলা জামা কিনেছিলেন। কিন্তু শীতের তীব্রতার কারণে সেগুলো কাজে আসছে না। দোকানগুলোতে প্রচুর ভীর থাকায় বিক্রেতারা দাম বাড়িয়ে দিয়েছে কয়েকগুন।