বাংলাদেশ শনিবার 20, January 2018 - ৬, মাঘ, ১৪২৪ বাংলা

কমিশনের সঙ্গে বিরোধ, মামলা কমছে বিইআরসি ট্রাইব্যুনালে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশিত ১৫:০১ জানুয়ারী ১৪, ২০১৮

 জ্বালানি খাতের মামলা নিষ্পত্তির জন্য স্থায়ী ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছিল বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। তবে এখন আর মামলা স্থানান্তর হচ্ছে না বিইআরসি ট্রাইব্যুনালে। কমিশন নিজেই নিষ্পত্তি করছে মামলাগুলো। ফলে কার্যত কর্মহীন হয়ে পড়ছে বিইআরসি ট্রাইব্যুনাল। বিইআরসি ও বিইআরসি ট্রাইব্যুনালের একাধিক সূত্রের সঙ্গে আলাপ করে এই দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বিরোধের কথা জানা গেছে। যদিও কমিশন বা ট্রাইব্যুনালের কেউই নাম প্রকাশ করে কিছু বলতে রাজি হননি। সূত্রগুলো বলছে, বিইআরসি ট্রাইব্যুনাল গঠনের সময় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা না করেই এককভাবে গেজেট প্রকাশ করে আইন মন্ত্রণালয়। গেজেট প্রকাশের পর বিইআরসি’র সাবেক সদস্য সেলিম মাহমুদকে চেয়ারম্যান করে গঠন করা হয় স্থায়ী ট্রাইব্যুনাল। এতে সদস্য করা হয় বিইআরসি’র আরও দু’জন সাবেক কর্মকর্তাকে। ট্রাইব্যুনাল গঠনের পর এই খাতের মামলাগুলোও ট্রাইব্যুনালেই আসতে শুরু করে। তবে বিইআরসি’র চেয়ারম্যান হিসেবে সাবেক বিদ্যুৎ সচিব মনোয়ার ইসলাম নিয়োগ পাওয়ার পর আর কোনও মামলা ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করা হয়নি। জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২২ জানুয়ারি ট্রাইব্যুনাল গঠনের বিষয়ে প্রথম গেজেট প্রকাশ করা হয়। এরপর ২০১৬ সালের ২০ এপ্রিল সেটি সংশোধন করে আবার গেজেট প্রকাশ করে সরকার। তাতে বলা হয়, বিইআরসি আইন ২০০৩-এর অধীনে কমিশনের বিচারিক পর্ষদ হিসেবে কাজ করবে ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনাল গঠনের পর প্রথম সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছিল, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের সব পর্যায়ের অভিযোগ ট্রাইব্যুনাল দেখবে। এসব অভিযোগের জন্য বাংলাদেশের নিয়মিত কোনও আদালতে যাওয়া যাবে না। অভিযোগ বা মামলা এখানেই করতে হবে। কিন্তু দুই বছর না ঘুরতেই ট্রাইব্যুনাল নিজেই অকার্যকর হয়ে পড়ছে। ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাইব্যুনাল জানিয়েছিল, তাদের কাছে ৯৫টি মামলা নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছে। তবে ট্রাইব্যুনাল ও কমিশনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ট্রাইব্যুনালে এখন মামলা রয়েছে মাত্র আটটি। অন্যদিকে কমিশন নিজে শুনানি করছে ১৫৬টি মামলা। এর মধ্যে আবেদনকারীদের রিটের পরিপ্রেক্ষিতে কমিশনের বদলে মামলা ট্রাইব্যুনালে পাঠানোর নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। তবে হাইকোর্টের এই আদেশের বিরুদ্ধে চেম্বার জজ আদালত নিষেধাজ্ঞা দেওয়ায় মামলাগুলো কমিশনই শুনানি করছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিইআরসি’র একজন সদস্য বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, ট্রাইব্যুনাল গঠনে আইন মন্ত্রণালয়ের একক সিদ্ধান্ত মানতে পারেনি জ্বালানি বিভাগ। এতে দুই মন্ত্রণালয়ের মধ্যে মতবিরোধ তৈরি হয়। তিনি বলেন, ‘আমরা কমিশনে নতুন সদস্য নিয়োগ হওয়ার পর বিষয়টি বুঝতে পেরেছি। এখন আমরা আর কমিশনের পক্ষ থেকে ট্রাইব্যুনালে মামলা দিতে পারছি না।’ এসব মামলা কমিশনের বদলে ট্রাইব্যুনালে শুনানি হলে তাদের কাজের চাপ কমতো বলে মন্তব্য করেন তিনি।

 

তবে কমিশনের আরেক সদস্য রহমান মুরশেদ বলছেন, ‘বিইআরসি’র আইন অনুযায়ী মামলা নিষ্পত্তি করা হয়। সাধারণ মানুষ বিইআরসিতে মামলা করে। এর মধ্যে কিছু মামলা ট্রাইব্যুনালে দেওয়া হয়, কিছু কমিশন নিজেই শুনানি করে সমাধান করছে।’ ট্রাইবুন্যালে মামলা কমে যাওয়ার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘কে কত মামলার সমাধান করছে, এটি বড় বিষয় নয়। মামলাগুলো সমাধান হচ্ছে কিনা, সেটাই বড় বিষয়।’

 

বিইআরসি ট্রাইব্যুনালের একজন সদস্যও নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি এক বক্তৃতায় বলেছেন, জ্বালানি খাতের মামলা নিষ্পত্তিতে আমরা স্থায়ী ট্রাইব্যুনাল করে দিয়েছি। ওই সময় বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী বিইআরসি’র কথা উল্লেখ করেননি। বিইআরসি’র কোনও কোনও সদস্য মনে করেন, এতে বিইআরসি’র মর্যাদা ক্ষুন্ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বক্তৃতায় ট্রাইব্যুনালের কথা বলার পর থেকেই কমিশন আর কোনও মামলা ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করছে না।’ তিনি আরও বলেন, ‘যেহেতু মামলাগুলো প্রথমে কমিশনে দায়ের করতে হয়, কমিশনই প্রাথমিকভাবে যাচাই-বাছাই করেই সেগুলো ট্রাইব্যুনালে পাঠায়। সঙ্গত কারণে কমিশন যদি মামলাগুলো ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর না করে, আমাদের কিছু করার থাকে না।’ কমিশনের সদস্যদের আইন বিষয়ে কোনও পারদর্শিতা না থাকলেও তারা একের পর এক মামলার রায় দিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। এ বিষয়ে ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান সেলিম মাহমুদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ট্রাইব্যুনালে মামলা আসছে। বিইআরসি’র আইন অনুযায়ী ক্রিটিক্যাল মামলাগুলো ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হচ্ছে।’ অন্য মামলাগুলো আসছে না কেন এবং মামলার সংখ্যা হঠাৎ কমে যাওয়ার কারণ কী— জানতে চাইলে তিনি মন্তব্য করতে রাজি হননি।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

ধামরাইয়ে চালককে জবাই করে রিক্সা ছিনতাই

ধামরাইয়ে চালককে জবাই করে রিক্সা ছিনতাই

ধামরাইয়ে র‌্যাব-পুলিশ আলাদীনস পার্কে পিকনিক করা অবস্থায় পিকনিক স্পটের আধা কিলোমিটার দূরত্বে এক রিক্সাচালককে গলা

মানারাত ভার্সিটিতে নবীনবরণ অনুষ্ঠান

মানারাত ভার্সিটিতে নবীনবরণ অনুষ্ঠান

  মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে স্পিং সেমিস্টার ২০১৮ ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের সম্মানে নবীনবরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ধামরাইয়ে ক্লাস বন্ধ রেখে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন 

ধামরাইয়ে ক্লাস বন্ধ রেখে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন 

ঢাকা-২০ আসন, ধামরাইয়ের সংসদ সদস্য এমএ মালেক ও তার স্ত্রী মিনা মালেকের বিরুদ্ধে বে-সরকারী টেলিভিশন


ভোরের কাগজ সম্পাদকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে সাভারে মানববন্ধন

ভোরের কাগজ সম্পাদকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে সাভারে মানববন্ধন

দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক বরেন্য সাংবাদিক শ্যামল দত্তের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ও

দুর্বৃত্তের কাছে পরাজিত হচ্ছি: সুলতানা কামাল

দুর্বৃত্তের কাছে পরাজিত হচ্ছি: সুলতানা কামাল

 মানবাধিকার সংস্কৃতি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সুলতানা কামাল বলেছেন, ‘অধিকার হারাতে হারাতে মানুষ হিসেবে নিজের মর্যাদা

হিজড়া পরিচয়ে ভোটার হওয়া যাবে : ইসি

হিজড়া পরিচয়ে ভোটার হওয়া যাবে : ইসি

 এখন থেকে হিজড়া (তৃতীয় লিঙ্গ) পরিচয়েও ভোটার হওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ভারপ্রাপ্ত


প্রেমিককে কুপিয়ে আটক ইডেনছাত্রী লাভলী কারাগারে

প্রেমিককে কুপিয়ে আটক ইডেনছাত্রী লাভলী কারাগারে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) জগন্নাথ হলের পেছনের গেটের বিপরীতে সাবেক প্রেমিক আলামিন হোসেনকে (২৫) ছুরিকাঘাতকারী ইডেন

সিপিডি একটি রাজনৈতিক দলের তাঁবেদারি নিয়ে ব্যস্ত: এইচ টি ইমাম

সিপিডি একটি রাজনৈতিক দলের তাঁবেদারি নিয়ে ব্যস্ত: এইচ টি ইমাম

গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) একটি রাজনৈতিক দলের তাঁবেদারি নিয়ে ব্যস্ত বলে মন্তব্য

শিশু ধর্ষণ-হত্যায় দুই আসামির ফাঁসি হাইকোর্টে বহাল

শিশু ধর্ষণ-হত্যায় দুই আসামির ফাঁসি হাইকোর্টে বহাল

: ২০০৮ সালে ঝিনাইদহের মহেশপুরে সাত বছরের শিশু আলপনা খাতুন ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় দুই



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ






শোক বাণী

শোক বাণী

১৯ জানুয়ারী, ২০১৮ ২৩:৩৩





হিজড়া পরিচয়ে ভোটার হওয়া যাবে : ইসি

হিজড়া পরিচয়ে ভোটার হওয়া যাবে : ইসি

১৮ জানুয়ারী, ২০১৮ ১৯:৪৩